মান্দায় নারীলোভী মাদরাসা সুপারের বিরুদ্ধে শালিকা কর্তৃক ধর্ষণ মামলা

প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: নওগাঁ মান্দায় নিমবাড়ীয়া দাখিল মাদ্রাসার নারীলোভী সুপার আবুল কালাম এর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা হয়েছে।

মামলা নং ১৬০ সি/২০১৮ মামলা সূত্রের জানা গেছে বৈলশিং গ্রামে মৃত তাছির উদ্দিনের পুত্র আবুল কালাম উপজেলা সদর প্রসাদপুর বাজারের বাসা ভাড়া নিয়ে স্ত্রী পুত্র নিয়ে থাকতেন এবং নিমবাড়ীয়া মাদ্রাসার সুপার কিন্তু বিল বেতন না থাকার কারণে পাশ্ববর্তী বৈলশিং চকবামন দাখিল মাদ্রাসায় অফিস সহকারী হিসাবে কর্মরত ছিলেন।

তার স্ত্রী ও একই মাদ্রাসায় সহকারী শিক্ষিকা হিসাবে কর্মরত ছিলেন। লম্পট কালামের সুন্দর শালিকা উপর কুদৃষ্টি পড়ে। গত ০১/০৬/২০১৮ইং তারিখ স্ত্রী বাবা বাড়ীতে অবস্থান করায় এবং শালিকা ভাড়া বাড়িতে একা পেয়ে ৮ টায় শালিকার ঘরে অনিধিকার জানালা দরজা বন্ধ করে। রাত্রি ভর ধষর্ণ করে।

তাকে মৃত্যু ভয় এবং তার বোনকে তালাক দেওয়া হুমকি দিয়ে কাউকে বলতে নিষেধ করে। পরবর্তীতে তার মা এবং ভাইদের বিষয়টি খুলে বললে। কালাম সাফ জানিয়ে দেয় এই বিষয়ে বাড়াবাড়ী করলে তার বোনকে তালাক দিতে বাধ্য থাকবে। শালিকা নিরুপায় হয়ে থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা না নেওয়ায় গত ০৭/০৬/২০১৮ইং তারিখে শালিকা বাদী হয়ে নওগাঁ জর্জ কোর্টে নারী ও শিশু ধর্ষণ মামলা করে।

এই ব্যাপারে চকবাবন বৈলশিং দাখিল মাদ্রাসা সুপার আব্দুল মজিদ জানান, কালাম ২০/২৫ দিন প্রতিষ্ঠানে না আসায় তাকে সোকচ করা হয়েছে। মান্দা থানা অফিসার ইনচার্জ জানান, তদন্ত চলছে। অবশ্যই তার বিরুদ্ধে আইন গত ব্যবস্থা নেয়া হবে। সুপার কালামের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *