সিলেট সিটি মেয়র প্রার্থী মো. মোয়াজ্জেম হোসেন খানের বিবরন

প্রথম সকাল ডটকম: আসন্ন সিলেট সিটি কর্পোরেশন সিসিক নির্বাচনে মেয়র পদে জমা দেওয়া মনোনয়নপত্র যাচাই-বাচাই শেষে ছয়জন প্রার্থীর হলফনামা বিশ্লেষণ করে জানা গেছে ইসলামী আন্দোলনের (চরমোনাই পীর) কেন্দ্রীয় সদস্য মো. মোয়াজ্জেম হোসেন খান ডিএফএম (ডিপ্লোমা ইন ফরেনসিক মেডিসিন) পাস করেছেন বলে উল্লেখ করেছেন।

তাঁর বিরুদ্ধে কোনো মামলা নেই। তিনি পেশা হিসেবে নিজেকে নর্থইষ্ট মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

তিনি বাৎসরিক আয় হিসেবে চাকুরী থেকে ১১ লক্ষ ২০ হাজার ৬ শত ২৪ টাকা উল্লেখ করেছেন।

তার নগদ রয়েছে ২০ হাজার টাকা। তার ব্যাংকে জমা রয়েছে মাত্র ১ লক্ষ টাকা। ৪০ হাজার টাকার ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী এবং ৩০ হাজার টাকার আসবাবপত্র রয়েছে। স্হাবর সম্পত্তির মধ্যে তার রয়েছে যৌথ মালিকানায় ২০০ শতাংশ ভুমি।

তিনি কোন ঋনখেলাপী নন। তিনি আয়ের উৎস হিসেবে তার নিজ ছেলে ফকির লোকমান হোসেন খানের বেতন থেকে ১ লক্ষ ৩৬ হাজার টাকা এবং ঢাকার বসুন্ধরা এলাকার শরীফ হোসেন ভূইয়ার  নিকট থেকে ২ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা দান দেখিয়েছেন।

মো. মোয়াজ্জেম হোসেন খান নির্বাচনী প্রতিকের পোষ্টার বাবদ খরচ ধরেছেন ১ লক্ষ টাকা। এছাড়া নির্বাচনী ক্যাম্প/অফিস বাবদ খরছ:- ১৭ হাজার টাকা, কেন্দ্রীয় ক্যাম্প/অফিস বাবদ খরছ:- ২০ হাজার টাকা, যাতায়াত বাবদ খরচ:- ৬০ হাজার টাকা, ঘরোয়া বৈঠক/সভা বাবদ খরচ:- ২০ হাজার টাকা, লিফলেট বাবদ খরচ:- ৯০ হাজার টাকা, ডিজিটাল ব্যনার বাবদ খরচ:- ৩৭ হাজার টাকা, পথসভা বাবদ খরচ:- ১০ হাজার টাকা, মাইকিং বাবদ খরচ:- ৫৫ হাজার টাকা, নির্বাচনী প্রতীক বাবদ খরচ:- ৭ হাজার টাকা, মিডিয়া বাবদ খরচ:-১০ হাজার টাকা, বিবিধ খরচ:- ১০ হাজার টাকার কথা উল্লেখ করেন।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *