২৪ স্ত্রী ১৪৯ সন্তান তার

প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রে একাধিক স্ত্রী রাখার দায়ে দুই ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত করেছেন ব্রিটিশ-কলম্বিয়া সুপ্রিমকোর্টের এক বিচারপতি।

বহুবিবাহের দায়ে ওই দুই ব্যক্তিকে শর্তসাপেক্ষে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এর মধ্যে উইন্সটন ব্লাকমোর নামে এক ব্যক্তি ২৪ স্ত্রী ও জেমস অলার নামের অন্য আরেকজন ব্যক্তি ৫ স্ত্রী রাখার দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের একটি গণমাধ্যম জানায়, ২৪ স্ত্রী রাখার দায়ে উইন্সটন ব্লাকমোরকে ছয়মাসের গৃহবন্দির আদেশ দিয়েছেন আদালত। আদালতের আদেশে বলা হয়েছে, গৃহবন্দি থাকালীন তিনি কাজের জন্য বাইরে যেতে পারবেন এবং চিকিৎসা সেবা নিতে পারবেন।

এছাড়া ৫ স্ত্রী রাখার দায়ে আদালত জেমস অলারকে তিনমাসের গৃহবন্দির আদেশ দিয়েছেন। পাশাপাশি উভয়ই ১২ মাসের প্রবেশন সময়ের মুখোমুখি হতে হবে। বিচারক শেরি এ্যান ডোনেগান বলেন, ‘যদিও উভয়ই কঠোর পরিশ্রমী এবং আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, তারপরও মুক্তি তাদের জন্য যথেষ্ট নয়। কারণ, তাদের অপরাধ গুরুতর।

তাদের বিবাহিত স্ত্রীদের মধ্যে অনেকের বয়স ১৫ বছরের নিচে। ব্লাকমোর (৬১) প্রসঙ্গে বিচারক বলেন, তার আচরণ দিয়ে সে এটা বুঝিয়ে দিয়েছে যে, কোনো দণ্ডাজ্ঞাই তাকে তার বিশ্বাসের চর্চা থেকে ফেরাতে পারবে না। তার ১৪৯ সন্তান রয়েছে! এতেই বোঝা যায় অনুশোচনার বিষয়ে তার মনোভাব কী?

অলার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শৈশবে অর্জিত ধর্মীয় বিশ্বাসই তাকে এ পথে পরিচালিত করেছে। আদালতের আদেশে ব্লাকমোরকে সর্বমোট ১৫০ ঘণ্টা জনসেবামূলক কাজ করতে বলা হয়েছে; যেখানে অলারকে করতে হবে ৭৫ ঘণ্টা। ব্লাকমোরের আদেশ যখন পড়ে শোনানো হয়, তখন আদালতে তার বেশ কিছু সমর্থক উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় তাদের কাঁদতে দেখা যায়। আদালতে ব্লাকমোরের আইনজীবী কারাদণ্ডের বিষয়টি যতদূর বিবেচনা করা যায়, তা বিবেচনায় নিতে আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এ সময় তিনি তার নিঃশর্ত মুক্তিও দাবি করেন।

কানাডার ইতিহাসে বহুবিবাহের অপরাধে অপরাধী হওয়ার অন্তত দুইটি মামলার উদাহরণ রয়েছে। ১৮৯৯ ও ১৯০৬ সালে মামলা দুটি করা হয়। অপরাধ আইনে কেউ বহুবিবাহের অপরাধে অভিযুক্ত হলে তার সর্বোচ্চ ৫ বছরের কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে।

This website uses cookies.