ভেঙে গেছে বাপ্পা-চাঁদনীর সংসার

প্রথম সকাল ডটকম: ভেঙে গেছে ভালোবেসে বাঁধা বাপ্পা-চাঁদনীর সংসার। অনেকদিনের গুঞ্জনটা সত্যি হয়ে হাজির হয়েছিলো ২১ মে বাপ্পা মজুমদার ও তানিয়া হোসাইনের বিয়ের খবরে।

গতকাল বুধবার (২৩মে) বাপ্পা নিজেই ফেসবুকে ঘোষণা দিয়ে এই বিয়ের ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছেন। তবে ধোঁয়াশা ছিলো কবে চাঁদনীর সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে তার, সে নিয়ে।

অবশেষে তাও কাটিয়ে দিলেন ‘পরী’ গানের গায়ক বাপ্পা। আজ বৃহস্পতিবার (২৪মে) দুপুরে নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাসে বাপ্পা নিশ্চিত করলেন আনুষ্ঠানিকভাবেই বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে গেছে চাঁদনীর সঙ্গে।

সেখানে তিনি চাঁদনীকে নিয়ে আবেগঘন কিছু কথাও লেখেন। বাপ্পার ডিভোর্স নিয়ে লিখেছেন, ‘গত ৯ অক্টোবর ২০১৭ আমাদের ডিভোর্সের আইনি প্রক্রিয়া শুরু হয় আর শেষ হয় ৯ জানুয়ারি ২০১৮-তে। আর আমরা আলাদা ছিলাম তাও ১ বছরের একটু বেশি সময় ধরে।

তিনি আরও লিখেছেন, ‌‌‘মানুষ এর জীবনে এমন অনেক কিছু হয় যা হওয়ার কথা থাকে না। ব্যক্তিগত বিষয়গুলো জীবনের অংশ মনে করে জীবনের সাথেই রেখে দেয়া ভালো। আমাকে আমার সকল ভক্তরা আমার কাজ দিয়ে চেনেন, আমি আমার কাজ নিয়েই থাকতে চাই, বাঁচতে চাই সবার মাঝে। কি হবে ব্যক্তিজীবনের গল্প জনে জনে বলে?

অন্যের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে আমি কখনোই আগ্রহী না যেমন ঠিক তেমন আমার ব্যক্তিগত জীবন ও কারো সাথে খুব একটা শেয়ার করা আমার বৈশিষ্ট না। তবে সময়ের কারণে আজ আপনাদের জানাতে হচ্ছে ….জীবন তার নিজের গতিতে চলে। সময় কারো নিজের ইচ্ছায় চলে না। সময় খুব খেয়ালি। জীবন সময় কখন কাকে কোথায় নিয়ে ফেলে বোঝা মুশকিল।

অনেক বছর একসাথে থেকে, থাকার চেষ্টা করে অবশেষে হার মানতে হয়েছে আমার আর চাঁদনীর। আমরা পারিনি আমাদের সংসার নিয়ে বাকি জীবন কাটাতে। কোনো অভিযোগ কিংবা অসম্মান আমার চাঁদনীর প্রতি নেই এমনকি চাঁদনীর ও আমার প্রতি কোনো অসম্মানবোধ আছে বলে মনে করিনা। যা হয়েছে তা ভাগ্যের লিখন মনে করি।

হবু স্ত্রী তানিয়া হোসাইনকে নিয়ে বাপ্পা বলেন, ‘তানিয়া আমার বন্ধু। দারুণ একজন বন্ধু। তানিয়ার সাথে আমার যোগাযোগ এবং ভালোলাগাও। এর সূত্র ধরেই অতিসম্প্রতি আমি আমার ভাবনা তানিয়া কে জানাই, তানিয়াও তার ভাবনা আমাকে জানায়। আমরা আমাদের পরিবারের সানিধ্য ছাড়া জীবনে চলতে চাই না। তাই ২ পরিবারের সিদ্ধান্তে একান্তই পারিবারিক ভাবে আমাদের বাগদান হয়।

আগেই বলেছি ব্যক্তিগত বিষয়গুলো আমি বরাবরই নিজের ভেতর রাখতে চাই। যেখানে পরিবার ইনভল্ভড সেখানে আর অপরিষ্কার কোনো চিত্র নেই। বাকিটা পরিবেশ আর পরিস্থিতি। আপনারা প্রার্থনা করবেন। বাপ্পা-তানিয়ার বিয়ে হলে এটি হবে দুজনেরই দ্বিতীয় বিয়ে। এর আগে বাপ্পা বিয়ে করেছিলেন চাঁদনীকে।

আর পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাসকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন তানিয়া হোসাইন। এক বছরের মধ্যেই ভেঙে যায় সেই সংসার। এরপর শোনা যায় ব্যান্ড তারকা পার্থ বড়ুয়ার সঙ্গে গোপনে প্রেম করছেন তানিয়া। প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালের ২১ মার্চ ধানমন্ডির ২৭ সিয়ার্স রেস্টুরেন্টে আনুষ্ঠানিকভাবে বাপ্পা মজুমদার ও চাঁদনীর বাগদান হয়। বাপ্পা ও চাঁদনী ভিন্ন ভিন্ন ধর্মের হলেও বাগদানের আগেই বাপ্পা ধর্মান্ত্মরিত হয়ে আহমেদ বাপ্পা মজুমদার হন। দুই পরিবারের সম্মতিতেই এই বাগদান সম্পন্ন হয়। পরে তাদের দুই পরিবার একসঙ্গে হয়ে ঘরোয়াভাবে বিয়ের কাজ সম্পন্ন করেন।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *