ভারতে বিকাশ ও রকেট চালু করা হোক

মুন্সি দরুদ: বিকাশ (bKash) ও রকেট (ROCKET) ব্যাঙ্কের শাখা ছাড়াই ব্যবহার্য এক একটা ব্যাংকিং মাধ্যম। ব্রাক ব্যাঙ্কের ব্যাংকিং মাধ্যম বিকাশ। শুধু বাংলাদেশী নাগরিকরা বিকাশ ব্যবহার করতে পারে।

ব্রাক ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট না থাকলেও বাংলাদেশী গ্রামীণফোন, বাংলালিঙ্ক সিম দ্বারা বিকাশ অ্যাকাউন্ট এজেন্টের কাছে খোলা যায়। তারপর বিকাশে টাকা লোড করে টাকা লেনদেন করা যায়।

একই সুযোগ ডাচ বাংলা ব্যাঙ্কের রকেট মাধ্যম। তবে ভারত থেকে বাংলাদেশে বিকাশ অথবা রকেট দ্বারা টাকা লেনদেন করা যায় না।

সংবাদ ও সাহিত্য-প্রিয় মানুষ হিসেবে অনেক সময় তথ্য ও প্রবন্ধ বিষয়ক বই, পত্রিকা সংগ্রহ করতে বা কেনার জন্য বাংলাদেশে পঞ্চাশ, একশ, দুশো টাকা পাঠানো অসম্ভব হয়ে যায়।

কারণ ভারত ও বাংলাদেশের ডাক বিভাগের করুণ দশা। ভারত থেকে বাংলাদেশে মানি অর্ডার করা অথৈজলে! ভারতের মতোই বাংলাদেশ ধীরে ধীরে ডিজিটাল হচ্ছে। ডাক বিভাগের মানি অর্ডার মাধ্যমকে টেক্কা দিয়ে আধুনিক ইন্টারনেট প্রযুক্তি যুগে বিকাশ ও রকেট সহজেই চালু করা যায়। তাই ভারত সরকার সহ বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী মাননীয়া শেখ হাসিনার কাছে আবেদন ভারতে বিকাশ ও রকেট চালু করা হোক। লেখক:- কাজীপাড়া, জেলা বীরভূম , পশ্চিমবঙ্গ, কলকাতা।

This website uses cookies.