সিলেটের জৈন্তাপুরে সড়ক সংস্কারের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ

শোয়েব উদ্দিন, জৈন্তাপুর (সিলেট): হরিপুর বাজার সড়ক সংস্কারের দাবিতে সিলেট তামাবিল মহাসড়ক মঙ্গলবার (২৪ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত চার ঘন্টাব্যাপী সড়ক অবরোধ করে রাখে সাধারণ জনতা।

জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌরিন করিম বলেন,সিলেট তামাবিল মহাসড়কের হরিপুর বাজারের রাস্তাটি পুকুরের মতো গর্ত হয়ে গেছে, যার কারণে এই স্থানে প্রতিনিয়ত নানা দূর্ঘটনা ঘটছে।

এতে সাধারণ জনতা ক্ষুব্ধ হয়ে সড়ক অবরোধ করে রাখে। এ সময় রাস্তার দুই পাশে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে। তিনি বলেন, আগামীকাল থেকে ভাঙা সড়ক মেরামত করা হবে এমন আশ্বাসে সাধারণ জনতা সড়ক অবরোধ তুলে নেয়।

উপ নির্বাহী প্রকৌশলী দেবাশিস রায় বলেন, গত ২৪ এপ্রিল টেন্ডার হয়েছে সে টেন্ডারের আলোকে শুক্রবারি বাজার, হরিপুর বাজার, জৈন্তাপুর স্টেশন বাজার থেকে জাফলং পর্যন্ত সড়ক লেপ ঢালাই করেদেয়া হবে। উল্লেখ্য, সিলেট তামাবিল মহাসড়কের শুক্রবারি বাজার,হরিপুর বাজার,ছালির পুল এলাকা, জৈন্তাপুর বাজার সড়ক এখন মরণ ফাঁদ।

এই সড়কে সব ধরনের যান চলাচল করছে ঝুঁকি নিয়ে।সড়কে গর্ত থাকায় যাত্রীদের চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ফলে প্রতিদিন কষ্ট করে চলাচল করছে শত শত গণ পরিবহন। এলাকাবাসীর অভিযোগ, ৫ বছর আগে সিলেট তামাবিল মহাসড়কটির সংস্কার কাজ হলেও গত ৩ বছর ধরে তা পুকুরের মতো গর্ত হয়ে আছে।

কয়েক মাস পর পর পুরনো ইট বালু দিয়ে গর্ত বরাট করে যায়, কিছুদিন পর আবার গর্ত হয়ে যায়। হরিপুর বাজারে প্রতিদিন গাড়ি নানা দূর্ঘটনা ঘটে ফলে সড়কে যানজট লেগেই থাকে।

এদিকে অবৈধ গাড়ি পার্কিং লেগুনা সিএনজি স্টেশন ও রাস্তার পাশে থাকা অবৈধ দোকান সরিয়ে দেয়ার দাবি জানান। রাস্তার পাশে অবৈধ স্থাপনা থাকায় যাত্রীদের চলাচলের অসুবিধা হচ্ছে বলে দাবি করেন সাধারণ জনতা। হরিপুর বাজার সড়ক সংস্কারের দাবিতে উপস্তিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌরিন করিম, উপ নির্বাহী প্রকৌশলী দেবাশিস রায়, জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খাঁন মোঃ মাইনুল জাকিরের, জেলা পরিষদ সদস্য মুহিবুল হক মুহিব, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলী, দরবস্ত ইউপি চেয়ারম্যান বাহারুল আলম বাহার, ফতেপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা রফিক আহমদ, উপজেলা জামায়ত নেতা রফিক আহমদ, আওয়ামী লীগের নেতা মুহিবুর রহমান মেম, আওয়ামী লীগের নেতা জয়নাল আবেদীন সিদ্দীকি প্রমুখ

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *