গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় সরকারি জায়গা দখলের পায়তারা

এম শিমুল খান, (গোপালগঞ্জ): গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত ব্যানার টানিয়ে সরকারি জায়গা দখলের পায়তারা করছে একটি মহল।

আশ্রমের ঘাটলার জন্য নির্ধারিত জায়গায় হঠাৎ দলীয় কার্যালয়ের জন্য নির্ধারিত স্থানের ব্যানার টানিয়ে দেওয়ায় এলাকার হিন্দু সম্প্রদায় ও সাধারণ জনগনের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলার রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের মনোহর মার্কেটে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, মনোহর মার্কেটের ব্রিজের পাশের ফাঁকা জায়গাটি স্থানীয় জনগন শান্তিহরি গনেশ পাগল সেবাশ্রমের ঘাটলা নির্মানের জন্য নিধারণ করেন।

সে অনুযায়ী তারা উক্ত স্থানে একটি সাইন বোর্ড টানিয়ে দেয়। এই সাইন বোর্ডটি তুলে ফেলে রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শওকত হোসেন ও রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কার্যালয়ের নির্ধারিত স্থান লেখা একটি ব্যানার টানিয়ে দেয়।

রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের ইউপি সদস্য হরষিদ বাড়ৈ বলেন, মনোহর মার্কেটের শান্তিহরি গনেশ পাগল সেবাশ্রমের বার্ষিক মহোৎসবে হাজার হাজার ভক্তবৃন্দের সমাগম ঘটে। এদের ¯œান ও আশ্রমের যাবতীয় কাজের জন্য আমরা এই ফাঁকা জায়গাটি ব্যবহার করতাম। কয়েকদিন আগে জেলা পরিষদ সদস্য দেবদুলাল বসু পল্টু উল্লেখিত স্থানে একটি পাকা ঘাটলা নির্মান করে দেবার প্রতিশ্রুতি দেয়।

সে অনুযায়ী আমরা ওখানে একটি সাইন বোর্ড টানিয়ে দেই। স্থানীয় কিছু আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতারা আমাদের সাইন বোর্ডটি তুলে ফেলে আওয়ামীলীগ কার্যালয় করার জন্য জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সংবলিত একটি ব্যানার টানিয়ে দেয়।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে মনোহর মার্কেটের কয়েকজন ব্যবসায়ী বলেন, এ রকমের সাইন বোর্ড টানিয়ে পূর্বেও এরা জায়গা দখল করে ঘর তুলে ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করে দিয়েছে। আমাদের বিশ্বাস এ বারও তারা সেই কাজটিই করবে। আমরা উক্ত স্থানে ঘাটলা নির্মানের জোর দাবি জানাচ্ছি। রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান বলেন, এখানে আমাদের অফিস করার জন্য পূর্বেই একটি সাইন বোর্ড টানানো ছিল।

খালের উপরে ব্রিজ নির্মানের সময় সেই সাইন বোর্ডটি খুলে ফেলা হয়। আমরা উক্ত স্থানে নতুন করে একটি সাইন বোর্ড টানিয়েছি। রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ আহম্মেদ বলেন, রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দলীয় কার্যালয় করার জন্য কোথাও কোন সাইন বোর্ড বা ব্যানার টানানো হয়নি। যদি কেউ টানিয়ে থাকে এটা তার ব্যক্তিগত বিষয়।

This website uses cookies.