নেত্রকোনায় বজ্রপাতে কৃষক নিহত : ছাত্রীসহ আহত ১৮

প্রথম সকাল ডটকম (নেত্রকোনা): নেত্রকোনার বিভিন্ন স্থানে বুধবার বজ্রপাতে এক কৃষক নিহত ও ১৮ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে বারহাট্টা রূপগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৬ জন ছাত্রী রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে খালিয়াজুরি উপজেলার লক্ষ্মীপুর হাওড়ে বজ্রপাতে মাসুদ মিয়া (৩৫) নামে এক কৃষক নিহত হন।

ওই কৃষক কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলার পালইকান্দা গ্রামের রহমত আলীর ছেলে। তিনি খালিয়াজুরীর লক্ষ্মীপুর হাওড়ে অস্থায়ী একটি ঘরে থেকে জমি চাষাবাদ করতেন। ঘরে কাজ করা অবস্থায়ই তার ওপর বজ্রপাত হয়।

এ সময় ঘরের মধ্যে থাকা দু’টি ছাগলও মারা যায়। অপরদিকে দুপুরের দিকে বারহাট্টা উপজেলার বাউসী বাজারের রূপগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বজ্রপাতে ১৬ ছাত্রী আহত হয়। বজ্রপাতের পর বিদ্যালয় জুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে বারহাট্টা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফরিদা ইয়াসমিন ওই অ্যাম্বুলেন্স পাঠিয়ে আহত ছাত্রীদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার ব্যবস্থা করেন।

পরে গুরুতর আহত ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী জাকিয়া জামান প্রীতি, রীপা আক্তার ও তৃণামণিকে বারহাট্টা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে পাঠানো হয়।

প্রধান শিক্ষক ফারুক আহাম্মদ জানান, আহত ছাত্রীরা এখন শঙ্কামুক্ত। এছাড়া বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নিজ বাড়িতে কাজ করা অবস্থায় বজ্রপাতে মোহনগঞ্জ উপজেলার সিংধা ইউনিয়নের নলুয়ারচর গ্রামের মৃত খোকন মিয়ার স্ত্রী খোকামনি (২৫) ও ধারাম গ্রামের আব্দুল হাসিমের স্ত্রী জ্যোৎস্না বেগম (৪৮) আহত হন।

তাদের মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এদিকে বুধবার দুপুরে বারহাট্টা উপজেলার চিরাম ইউনিয়নের ওপর ঝড় বয়ে গেলে এ সময় গাছের ডাল পড়ে মো. কামাল মিয়া গুরুতর আহত হন। পড়ে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে বারহাট্টা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *