২৯ মার্চ থেকে এইচএসসির সব কোচিং সেন্টার বন্ধ

প্রথম সকাল ডটকম:  আসন্ন এইচএসসি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আগামী বৃহস্পতিবার (২৯ মার্চ) থেকে দেশের সব কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে।

পরীক্ষা শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে। বুধবার দুপুরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এমন ঘোষণা দেয়া হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মুহাম্মদ জিয়াউল হক বলেন, পরীক্ষার নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার সময় কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২৯ মার্চ থেকে পরীক্ষা শেষ না হওয়া পর্যন্ত কোচিং সেন্টারগুলো বন্ধ থাকবে। এছাড়াও সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা আয়োজনে আরও বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সেগুলোও বাস্তবায়ন করা হবে।

এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. জাবেদ জানান, প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে এবং পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে বেশ কিছু সিদ্ধান্তের বিষয়ে আজ আদেশ জারি হবে। তার মধ্যে কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত রয়েছে। তবে এইচএসসি পরীক্ষার সময় শুধু উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের কোচিং কার্যক্রম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এর বাইরে কোচিং সেন্টার খোলা রাখতে পারবে।

তিনি বলেন, ২৫ মার্চ অনুষ্ঠিত পাবলিক পরীক্ষা-সংক্রান্ত জাতীয় তদারক কমিটির সভায় যেসব সিদ্ধান্ত হয়েছিল, সেগুলো আজ আদেশ আকারে জারি করা হবে। এছাড়া পরীক্ষা চলাকালে কেন্দ্রের ২০০ মিটারের মধ্যে মোবাইল ফোনসহ ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার নিষিদ্ধ, কেন্দ্র সচিব ছাড়া আর কেউ মোবাইল ফোন কেন্দ্রে না আনদতে পারবে না।

তবে কেন্দ্রসচিবও শুধু একটি সাধারণ ফোন ব্যবহার করবেন। এ ছাড়া এবার ট্রেজারি বা থানা থেকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বা দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে প্রশ্নপত্র কেন্দ্রে নিতে হবে। পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে। এ ছাড়া কোনো প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা, তার সেট নির্ধারণ করা হবে পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে।

তবে কোচিং সেন্টার বন্ধের সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কোচিং অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহাবুব আরেফিন। তিনি বলেন, কোচিং সেন্টার প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত না হলেও পরীক্ষার আগে তা বন্ধ ঘোষণা করা হচ্ছে।

এতে আমরা আর্থিকভবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। আমরা বিভিন্নভাবে এর প্রতিবাদ জানিয়ে আসছি। এর ধারাবাহিকতায় আজ মঙ্গলবার বিকেলে জরুরি সভা ডাকা হয়েছে। সেখানে তাদের আন্দোলনের পরবর্তী কর্মসূচির সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। উল্লেখ্য, আগামী ২ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। শেষ হবে ১৪ মে।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *