গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের উপ-নির্বাচন : কঠোর নিরাপত্তার মধ্য ভোট গ্রহণ আজ

হযরত বেল্লাল, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা): কঠোর নিরাপত্তা বলয়ের মধ্য দিয়ে গাইবান্ধা-১ সুন্দরগঞ্জ আসনের সংসদ উপ-নির্বাচন আজ। অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচনের প্রত্যয় নিয়ে সোমবার সকাল ১০টা হতে বিকাল ৪টা পযন্ত ১০৯টি ভোট কেন্দ্রে ভোটের উপকরণ বিতরন করেছে রিটানিং অফিসার।

আজ মঙ্গলবার সকাল ৮ টা হতে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। রিটার্নিং অফিসার ও রংপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা জিএম সাহাতাব উদ্দিন জানান-১০৯টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৮৩টি ভোট কেন্দ্রকে অধিক গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনা করে বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

ভোট কেন্দ্রের দায়িত্বে নিয়োজিত আছেন ২৫ জন ম্যাজিস্ট্রেট। ৪৩টি পুলিশ ও র‌্যাবের মোবাইল টিম, ১৬টি স্ট্রাইকিং ফোর্সের মোইল টিম, ৫টি চেক পোষ্ট মোবাইল টিম,২টি নৌ প্লাটুন মোবাইল টিম, ৮ প্লাটুন বিজিবি, প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে পুলিশ-আনসারসহ ২৬ জন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য কাজ করছেন।

সব মিলে সাড়ে ৪ হাজার আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য নির্বাচনের জন্য মোতায়েন রয়েছে। এছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব, বিজিবি, দাঙ্গা পুলিশ ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যের টহল গোটা নির্বাচনী এলাকায় অব্যাহত রয়েছে। লাঙল মার্কার প্রার্থী শামীম হায়দার পাটোয়ারী  বলেন- অবাধ ও নিরপেক্ষভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে আমি নিশ্চিত জয় লাভ করব।

আমি আশা করছি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা নিজ-নিজ অবস্থান থেকে নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করবেন। নৌকা মার্কার প্রার্থী  আফরুজা বারী বলেন-মানুষ উন্নয়নের স্বার্থে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করবেন বলে আমি আশাবাদি। থানা অফিসার ইনচার্জ আতিয়ার রহমান জানান- কঠোর ও নিছিদ্র নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

নির্বাচনের কাজে নিয়োগ দেয়া হয়েছে ২ হাজার ৫০জন কর্মকতা। নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার মোট ১০৯টি ভোট কেন্দ্রের ৬৪৭টি বুথের বিপরীতে ১০৯ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৬৪৭ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার এবং ১ হাজার ২৯৪ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে।

উপজেলায় মোট ভোট সংখ্যা ৩ লাখ ৩৮ হাজার ৫৫৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৬৪ হাজার ৯৩৪ জন এবং মহিলা ১ লাখ ৭৩ হাজার ৬২২ জন। ২০১৭ সালের ১৯ ডিসেম্বর সাংসদ গোলাম মোস্তফা আহমেদ সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান। যার কারণে আসনটি শুন্য ঘোষনা করা হয়। সে মোতাবেক গত ৪ ফেব্রয়ারী নিবার্চন কমিশন উপ-নিবার্চনের তফশীল ঘোষণা করে।

This website uses cookies.