কলকাতায় কবিতা আকাদেমিরর আমন্ত্রণে কবিতা উৎসবে কবিতা পড়বেন কবি ফারুক আহমেদ

কলকাতা প্রতিনিধি: ৬ মার্চ, ২০১৮ কলকাতায় রবীন্দ্রসদন প্রাণঙ্গে পশ্চিমবঙ্গ কবিতা আকাদেমি আয়োজিত মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় শুরু হয়েছিল কবিতা উৎসব। আজ শেষদিন। বহু কবিরা কবিতাপাঠ করেছেন।

আজও চলবে কবিতাপাঠ। আজ কবিতা পড়বেন কবি ফারুক আহমেদ। নিকেল ৫ টায়।  কবিতা কর্নারে আপনাদের সাদর আমন্ত্রণ। ওই মঞ্চে কবি হীরক বন্দ্যোপাধ্যায়, গোলাম রসুল, আবদুর রব খান সহ কয়েজনের কবিতাপাঠ আছে।  হল ৪ থেকে ৬ মার্চ। 

কবিতা উৎসবের শুভ সূচনায় উপস্থিত ছিলেন কবি নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইন্দ্রনীল সেন, রাষ্ট্রমন্ত্রী, তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগ এবং পর্যটন বিভাগ, পশ্চিমবঙ্গ সরকার। উজ্জ্বল উপস্থিতি ছিল বহু কবি ও সাহিত্যিক।

উদ্বোধনের দিন কবিতার গান গাইলেন প্রতুল মুখোপাধ্যায়। উপস্থিত ছিলেন বাংলা সাহিত্য প্রখ্যাত কবি ও বাংলা কাজী নজরুল ইসলাম আকাদেমির সভামুখ্য জয় গোস্বামী। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগের অন্তর্গত পশ্চিমবঙ্গ কবিতা অকাদেমি-র উদ্যোগে অকাদেমির রবীন্দ্রসদন এবং চত্বর সংলগ্ন প্রাঙ্গণে ৪-৬ মার্চ ২০১৮ কবিতা উৎসবের শুভ সূচনা হল।

কবিতা উৎসবের বিভিন্ন দিনে অকাদেমি প্রবর্তিত স্মারক আলোচনা, সম্মারক সম্মান, কবিতার গান, কীর্তন, কাব্যনাট্য পাঠ, সম্মেলক, কথাবিন্যাস, কবিতা কনসার্ট, স্ট্রিম কনসার্ট সহ আলোচনাসভা, কবিতাপাঠ এবং প্রাসঙ্গিক বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। কবিতা উৎসবের ৬ মার্চ ২০১৮ বিকাল পাঁচটার সময় রবীন্দ্রসদন প্রাণঙ্গ কবিতা কর্নারে কবিতা পাঠ করলেন কবি ও “উদার আকাশ” পত্রিকা-প্রকাশনের সম্পাদক ফারুক আহমেদ।

কবিতা পাঠের পর প্রত্যেক কবিকে অর্থ মূল্য দিয়ে সম্মানিত করা হয়। পশ্চিমবঙ্গ সরকারি উদ্যোগে আয়োজিত এই মহা কবিতা উৎসব ও সাংস্কৃতিক মিলন প্রয়াসের আয়োজনে কবিতা পাঠের জন্য কবি ফারুক আহমেদকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে পশ্চিমবঙ্গ কবিতা অকাদেমি-র সভাপতি।

তিনি লিখিত আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। কবি ও সম্পাদক ফারুক আহমেদ এক বিবৃতি দিয়ে সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, মহা এই সাংস্কৃতিক উৎসবে কবিতা পাঠ করতে পেরে তিনি মুগ্ধ ও বিমুগ্ধ হয়েছেন। তাঁকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য তিনি কৃতজ্ঞ সরকারের কাছে।

তিনি সরকারি উদ্যোগে এই  সাহিত্য ও কবিতা উৎসবের সার্বিক সাফল্য কামনা করছেন। সঙ্গে তিনি সরকারের নিকট এই দাবী রেখেছেন এবছর ৪৭৪ জনের মধ্যে বহু জেলার যোগ্য কবিরা ডাক পান নি। তাঁদেরকে আগামী কবিতা উৎসবে ডাকার জন্য আবেদন রেখেছেন। এছাড়াও তিনি জেলায় জেলায়  কবিতা উৎসব করার আহ্বান জানিয়েছেন।

This website uses cookies.