রাজশাহীর বাগমারায় প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ আহত ১৫

প্রথম সকাল ডটকম (রাজশাহী): রাজশাহীর বাগমারায় প্রতিপক্ষের হামলায় নারী ও আ’লীগ নেতাসহ ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে তিনকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন- মাড়িয়া ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শাহীনুর ইসলাম সান্টু (৩৫), আ’লীগ নেতা আলম হোসেন (৪৮) ও সান্টুর মা জহুরা বেওয়া (৫৫)।

জহুরা বেওয়ার অবস্থা আশংকজনক হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থান্তর করা হয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সোমবার সকালে উপজেলার মাড়িয়া ইউনিয়নের পয়েসঘোষ গ্রামের জহুরা বেওয়া তার বাড়ির পাশ্বের নিজের জমিতে গরুর মল (গবর) ফেলছিল।

এসময় প্রতিবেশী সাহজাহান আলী সেখানে মল ফেলতে বাঁধা দেয়। সাহজাহান আলীর বাঁধা উপেক্ষা করে জহুরা বেওয়া তার জমিতে মল ফেলে। ওই সময় সাহজাহান আলী, মোজাম্মেল হক, মকলেছুর রহমান, জাকিরুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন সংঘবদ্ধ হয়ে জহুরা বেওয়াকে মারধরের চেষ্টা করে।

বিষয়টি জানার পর জহুরা বেওয়ার ছেলে ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহীনুর ইসলাম সান্টু ঘটনারস্থলে যায়। ওই সময় সাহজাহান আলী তার লোকজন নিয়ে হামলায় চালায়। তাদের হামলায় নারীসহ ১৫ জন আহত হয়। জহুরা বেওয়ার হামলার খবরটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে লোকজন এগিয়ে আসে।

এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে করে বাগমারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে।

আহতদের মধ্যে জহুরা বেওয়ার অবস্থা আশংকজনক বলে চিকিৎসকেরা তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। জহুরা বেওয়ার ছেলে ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহীনুর ইসলাম সান্টু অভিযোগ করে বলেন, আমাদের ভোগ দখলী সম্পত্তি প্রতিবেশী জামায়াত-বিএনপি’র নেতা সাহজাহান আলী তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে জবর দখলের চেষ্টা করে।

এসময় বাঁধা দিতে গেলে তার সংঘবদ্ধ হয়ে আমাদের হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। তিনি অবিলম্বে ওই সকল সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছেন। এব্যাপারে যোগযোগ করা হলে বাগমারা থানার ওসি নাছিম আহম্মেদ বলেন, বিষয়টি জানার পর পরই সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলেই অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

 

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *