ফিলিপাইনে ভয়াবহ অগ্ন্যুৎপাতের আশঙ্কা

প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: কয়েক হাজার ফিলিপিনো পরিবারকে আলবে প্রদেশ থেকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। দেশের সবচেয়ে সক্রিয় মাউন্ট মেয়ন আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের আশঙ্কা থেকেই ওই এলাকা থেকে লোকজনকে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।

সোমবার মাউন্ট মেয়নে আগ্নেয়গিরি থেকে লাভা এবং ছাইসহ ধোঁয়া বের হতে দেখা গেছে। এরপরেই কর্মকর্তারা চারমাত্রার সতর্কতা জারি করেন। এই পরিস্থিতিতে সেখানকার ৪০ হাজার বাসিন্দাকে তাদের ঘরবাড়ি থেকে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

আগ্নেয়গিরির চারপাশে আট কিলোমিটার এলাকায় জনসাধারণের চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, ঘন ধোঁয়ার কুণ্ডলী ১০ কিলোমিটার ওপরে উঠে গেছে।

আলবে প্রদেশের গভর্নর আল ফ্রান্সিস বিছারা জানিয়েছেন, ধোঁয়ার ফলে কোন কোন এলাকায় খালি চোখে কিছুই দেখা যাচ্ছে না। পাশাপাশি ঐ এলাকায় ঝড়ো বাতাস বইছে এবং আগ্নেয়গিরির ছাই দূরের শহরগুলিতে ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সম্প্রতি ঐ আগ্নেয়গিরিতে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে এবং ঐ অঞ্চলের একটি শহর লেগাস্পি মিহি ছাই এবং বালির আস্তরণে ঢাকা পড়েছে।

দিনের আলোতেও ওই এলাকায় অন্ধকারাচ্ছন্ন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। ফিলিপাইনে মোট ২২টি জীবন্ত আগ্নেয়গিরি রয়েছে। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২৪৬০ মিটার উঁচু মাউন্ট মেয়নে শেষবারের মতো অগ্নুৎপাত ঘটেছিল ২০১৪ সালে। তারও আগে ১৮১৪ সালে কাগসাওয়া শহরটি এই আগ্নেয়গিরির লাভার নীচে চাপা পড়ে যায়। সে সময় এক হাজারেরও বেশি মানুষ প্রাণ হারায়।

 

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *