ভালো খেলতে খেলতে আউট মাসাকাদজা

প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: শ্রীলঙ্কান বোলারদের সামনে বিশাল বড় বাধা হয়েছিলেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যানের ব্যাটে ভর করে হাথুরুসিংহের শ্রীলঙ্কার ওপর ধীরে ধীরে চাপ সৃষ্টি করে যাচ্ছিলো জিম্বাবুয়েও।

উদ্বোধনী জুটিতেই সলোমন মিরেকে সঙ্গে নিয়ে খেলেছিলে ৭৫ রানের ইনিংস। ৪২ রান করে মিরে আউট হওয়ার পর দ্রুত ফিরে যান ক্রেইগ আরভিনও। কিন্তু মাসাকাদজা একপাশ আগলে রেখে টেনে নিচ্ছিলেন জিম্বাবুয়েকে।

কিন্তু ক্যারিয়ারের ৩২তম হাফ সেঞ্চুরি করার পর নিজের ইনিংসকে ৬ষ্ঠবারের মত তিন অংকের ঘরে নিতে পারলেন না তিনি। আউ হয়ে গেলেন ৭৩ রান করে। ৮৫ রানে ২ উইকেট পড়ার পর ব্রেন্ডন টেলরকে নিয়ে ৫৭ রানের জুটি গড়েন মাসাকাদজা।

কিন্তু দলীয় ১৪২ রানের মাথায় অ্যাসেলা গুনারত্নের প্রথম ওভারেই ধরা পড়েন পরিবর্তিত ফিল্ডার গুনাথিলাকার হাতে। ৮৩ বলে খেলা এই ইনিংসটি তার সাজানো ছিল ১০টি বাউন্ডারিতে। এ রিপোর্ট লেখার সময় জিম্বাবুয়ের রান ২৯ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৪৫। ২৯ রান নিয়ে ব্যাট করছেন ব্রেন্ডন টেলর এবং ১ রান নিয়ে রয়েছেন সিকান্দার রাজা।

বাংলাদেশের বিপক্ষের বাজেভাবে হারের পরই জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক বলেছিলেন পরের ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াবে তার দল। দ্বিতীয় ম্যাচে তার কথার প্রতিফলন দেখা যাচ্ছে। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দলকে উড়ন্ত সূচনা এনে দিয়েছেন দুই ওপেনার মাসাকাদজা ও মিরে।

তবে এরপর সাজঘরে ফিরে গেছেন মিরে। সাজঘরে ফেরার আগে করেন ৩৪ রান। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করেন দুই ওপেনার মাসাকাদজা ও মিরে। প্রথম ওভার থেকেই রানের চাকা সচল রাখেন দুই তারকা। প্রথম দশ ওভারেই তুলে নেন ৬৪ রান। তাও কোন উইকেট না হারিয়ে।

শ্রীলঙ্কা একাদশ:- উপল থারাঙ্গা, কুশল পেরেরা, দীনেশ চান্ডিমাল, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ, কুশল মেন্ডিস, আসলে গুনারত্নে, থিসারা পেরেরা, আকিলা ধনঞ্জয়া, সুরাঙ্গা লাকমল, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, দুষ্মন্ত চামেরা।

জিম্বাবুয়ে একাদশ:- হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, সলোমন মিরে, ক্রেইগ আরভিন, ব্রেন্ডন টেলর, সিকান্দার রাজা, পিটার মুর, ম্যালকম ওয়ালার, গ্রায়েম ক্রেমার (অধিনায়ক), ব্লেসিং মুজারাবানি, টেন্ডাই চাতারা, কাইল জার্ভিস।

 

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *