অদ্ভূতভাবে ২০১৮ সাল বরণ!

প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: বিশ্বের নানা প্রান্তে জমকালো অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্য দিয়ে নববর্ষ বরণ করেছে বিশ্ববাসী। তবে নতুন বছর ২০১৮ সালকে বরণ করতে গিয়ে অদ্ভূত এক কাণ্ড করে বসেছেন ভারতের এক তরুণ।

এ ঘটনায় শোরগোল পড়েছে জেলা জুড়ে। পশ্চিমবঙ্গের সদানন্দ দত্ত ২০১৮ সালকে বরণ করে নিয়েছেন হীম-শীতল পানিতে টানা ২০১৮ বার ডুব দিয়ে। সদানন্দ ইংরেজি বছরকে স্বাগত জানাতেই বিষ্ণুপুরে এই ম্যারাথন ডুব দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, মকর সংক্রান্তির পূণ্যলগ্নে গঙ্গাসাগরে কয়েক লক্ষ পূণ্যার্থীর ডুব দেয়ার আগেই বিষ্ণুপুরের লালবাঁধের ঠান্ডা পানিতে ২০১৮ বার ডুব দিয়ে বর্ষবরণ করেছেন এই তরুণ।

তবে সদানন্দের এরকম কাজ এবছরই প্রথম নয় এর আগেও এমন কাজ করেছেন। নতুন বছর শুরুর প্রথম দিনে শীত উপেক্ষা করে কনকনে ঠাণ্ডা পানিতে তার ডুব দেয়ার খবর ছড়িয়ে পড়ে আশপাশের বেশ কয়েকটি জেলায়। সদানন্দের ডুব দেখতে প্রতি বছরের মতো এবছরও এলাকার বহুমানুষ লালবাঁধের ধারে ভিড় জমিয়েছিলেন।

নতুন বছরের শুরুতে শীতের নরম রোদ গায়ে নিয়ে একেবারে পেশাদার সাঁতারুর মতোই ২০১৮ বার ডুব দেন তিনি। উপর্যুপরি দুই হাজার ১৮ বার ডুব দেয়া উপভোগ করেন মন্দির নগরীতে আগত পর্যটকরা। কিন্তু কেন এই উদ্যোগ? সদানন্দের ভাষ্য, ‘নতুন বছরের শুরুতে কনকনে ঠাণ্ডা পানিতে ডুব দেয়ার মাধ্যমে এখানে আগত পর্যটক এবং বিষ্ণুপুরবাসীকে অনাবিল আনন্দ দিতেই আমার এই প্রচেষ্টা।

এতে নতুন বছরের শুরুতেই মল্লরাজাদের ঐতিহাসিক লালবাঁধের পাড়ে লোক সমাগম হয়। বিষ্ণুপুর পৌরসভার উপপুরপ্রধান বুদ্ধদেব মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘এই তরুণ বিষ্ণুপুর পর্যটনে নতুন পালক। সদানন্দ বাংলার গৌরব। নতুন বছরের শুরুতে বিষ্ণুপুরে পর্যটকদের কাছে সদানন্দের ডুব এক বড় চমক।

 

This website uses cookies.