জঙ্গি মারজানের বোন খাদিজা ৩ দিনের রিমান্ডে

প্রথম সকাল ডটকম (যশোর): যশোরে ‘জঙ্গি আস্তানায়’ শ্বাসরুদ্ধকর ‘মেল্টেড আইস’ অভিযানে আত্মসমর্পণ করা জঙ্গি মারজানের বোন খোদেজা আক্তার খাদিজার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

তাকে আদালতের হাজিরের তৃতীয় দিনের মাথায় সোমবার এই রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত। আদালত সূত্র জানায়, রাজধানীর হলি আর্টিজান হামলার ‘অন্যতম হোতা’ নিহত মারজানের বোন খাদিজাকে সোমবার যশোরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বুলবুল ইসলামের আদালতে হাজির করা হয়।

হাজিরের পর শুনানি শেষে আদালত ৩ দিনের জন্য রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে গত বৃহস্পতিবারও (১৯ অক্টোবর) খাদিজাকে যশোর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়েছিল। সেদিন আদালতে হাজির হয়ে খাদিজা আইনজীবী নিয়োগের জন্য সময় প্রার্থনা করলে আদালত তা মঞ্জুর করেন এবং ২৩ অক্টোবর রিমান্ড শুনানির পরবর্তী দিন ধার্য করে।

এর আগে গত ৮ অক্টোবর রোববার দিবাগত রাত ২টা থেকে যশোর শহরের ঘোপ নওয়াপাড়া রোড এলাকার একটি বাড়িতে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে অভিযান শুরু হয়। শ্বাসরুদ্ধকর এ অভিযান ‘মেল্টেড আইস’ শেষ হয় সোমবার বিকেল ৫টার দিকে। অভিযানে সন্দেহভাজন জঙ্গি হাফিজুর রহমান সাগর ওরফে মশিউর রহমানের স্ত্রী ও হলি আর্টিজান হামলার ‘অন্যতম হোতা’ নিহত মারজানের বোন খোদেজা আক্তার খাদিজা তিন সন্তান নিয়ে আত্মসমর্পণ করেন।

অভিযান শেষে পুলিশের পরিদর্শক (গোয়েন্দা, অনুসন্ধান ও কমিউনিটি পুলিশিং) তোফায়েল বাদী হয়ে যশোর কোতোয়ালি থানায় খোদেজা, তার স্বামীসহ অজ্ঞাত আরও ৪/৫ জনকে আসামি করে থানায় সন্ত্রাস দমন আইনে মামলাটি করেন।

এ মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয় ওসি (তদন্ত) আবুল বাশারকে। পরদিন ১০ অক্টোবর পুলিশ খাদিজাকে যশোরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আকরাম হোসেনের আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এক সপ্তাহের রিমান্ডের আবেদন করে।

আদালত ১৯ অক্টোবর রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করে খাদিজাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। সে অনুযায়ী পুলিশ বৃহস্পতিবার খাদিজাকে আদালতে হাজির করে। এদিন খাদিজার আবেদনের প্রেক্ষিতে দিন পিছিয়ে সোমবার রিমান্ড শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। এরপর আদালত ওই তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। কোর্ট পরিদর্শক রোকসানা খাতুন রিমান্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আদালতে হাজিরার সময় শিশু রাজু খাদিজার সঙ্গে ছিল।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *