এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্নের প্রস্তুতি চলছে

প্রথম সকাল ডটকম: চলতি বছর সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস কোর্সের প্রথম বর্ষে (২০১৭-২০১৮) ভর্তি পরীক্ষার আর মাত্র পাঁচদিন বাকি। আগামী ৬ অক্টোবর স্বাস্থ্য অধিদফতরের অধীনে কেন্দ্রীয়ভাবে রাজধানীসহ সারাদেশে অভিন্ন প্রশ্নপত্রে এ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত ১০০ নম্বরের নৈব্যক্তিক প্রশ্নপত্র থাকবে। এরমধ্যে জীববিদ্যা- ৩০, রসায়ন-২৫, পদার্থবিদ্যা-২০, ইংরেজি-১৫, সাধারণ জ্ঞান, বাংলাদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতি- ৬ এবং আন্তর্জাতিক বিষয়ে ৪ নম্বর থাকবে। পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০।

চলতি বছরের ভর্তি পরীক্ষায় ৮২ হাজারেরও বেশি পরীক্ষার্থী অংশ নেবেন। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্ভরযোগ্য একাধিক সূত্রে জানা গেছে এরইমধ্যে একদল বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক-শিক্ষকের সমন্বয়ে গঠিত প্রশ্নপত্র প্রণয়ন কমিটি কঠোর গোপনীয়তায় প্রশ্নপত্র প্রণয়নের কাজ শেষ করেছেন।

আগামী দুই একদিনের মধ্যে ছাপার কাজও শুরু হবে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা ও স্বাস্থ্য জনশক্তি উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো.আবদুর রশীদের কাছে সার্বিক প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চাইলে রোববার দুপুরে তিনি জাগো নিউজকে জানান, ৬ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে।

ওইদিনের ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে বলে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করে অধ্যাপক আবদুর রশীদ জানান, রাজধানীসহ সারাদেশের ২০টি কেন্দ্রে ৬ অক্টোবরের ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে হচ্ছে কি না তা সরেজমিন দেখতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে শতাধিক সদস্যের একাধিক পরিদর্শক টিম গঠন করা হয়েছে।

আগামীকাল কিংবা পরশু সংশ্লিষ্ট নামের তালিকা প্রকাশ করা হবে। সাধারণত তিন থেকে চার সদস্যের প্রতিটি পরিদর্শক টিমে সচিব থেকে শুরু করে উপ-পরিচালক পর্যায়ের কর্মকর্তারা থাকবেন। জানা গেছে, বর্তমানে দেশে সরকারি ৩১টি ও বেসরকারি ৬৯টিসহ মোট ১০০টি মেডিকেল কলেজ রয়েছে। এগুলোতে মোট আসন সংখ্যা নয় হাজার ৫৬৮টি।

এর মধ্যে সরকারিতে তিন হাজার ৩১৮ এবং বেসরকারিতে ছয় হাজার ২৫০টি আসন রয়েছে। অধ্যাপক ডা.আবদুর রশীদ জানান, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে ২০ নভেম্বর পর্যন্ত রাজধানীসহ সারাদেশের কোচিং সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। কোচিং সেন্টারগুলো খোলা রাখা হচ্ছে কি না, সেদিকে নজর রাখতে র‌্যাব, ডিবি, সিআইডি ও পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তাদের অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে।

শুধু তাই নয়, এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক কার্যক্রম তদারকি করতে বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে ওভারসাইট কমিটি গঠিত হয়েছে। এ কমিটিতে সিনিয়র সাংবাদিক গোলাম সারোয়ার, নাইমুল ইসলাম খান, শিক্ষা বিশেষজ্ঞ ড. জাফর ইকবাল, কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ, বিএসএমএমইউ ভিসি অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, বিএমএ’র বর্তমান সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন ও অধ্যাপক ডা. মাহমুদ হাসান প্রমুখ রয়েছেন।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *