মোরেলগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসের অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ

মো: শামীম আহসান মল্লিক, মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট): বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসের অনিয়ম ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগে জানা গেছে উপজেলা শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারী কাম টাইপিষ্ট মিজানুর রহমান এর সহায়তায় ৭২ নং নেহালখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক প্রাথমিক শিক্ষক শেখ মো: ফজলুর রহমান রিপন ১জানুয়ারী ২০১৬ ইং তারিখে যোগদান করার পর থেকে আজ পর্যন্ত অফিসে আছেন ও ১১১ নং শেখ পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এর সহকারী শিক্ষক উৎপল হালদার অফিসে প্রায় ৪/৫ বছর ধরে ডেপুটিশনের নামে পড়ে আছে। যার কারনে বিদ্যালয়ের ছোট ছোট কচিকাচা ছাত্র/ছাত্রীদের লেখাপড়া বঞ্চিত করে প্রাক প্রাথমিক শিক্ষকদেরকে বছরের পর বছর অফিসে এনে কাজের নামে বিভিন্ন অবৈধ সুবিধা আদায় করে।

চলতি বছরে মোরেলগঞ্জ যোগদান কৃত প্যানেল ও পুল শিক্ষকদের নিয়মিত বেতন করার জন্য প্রাক শিক্ষক শেখ মো: ফজলুর রহমান রিপন, সহকারী শিক্ষক উৎপল হালদার ও অফিস সহকারি মিজানুর রহমান ৫০ জন শিক্ষকদের কাছ থেকে জন প্রতি ১ হাজার থেকে ৩ হাজার টাকা উৎকোচ আদায় করে। কিছু সংখ্যক শিক্ষক টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় তাদের বেতন না করে ফাইল ফেলে রেখে ভিতরের বিভিন্ন কাগজ ফাইল থেকে সরিয়ে রেখে হয়রানি ও পূনরায় কাগজ দেবার নামে অফিসে ডেকে ভয় ভীতি প্রদর্শন করে উৎকোচ আদায় করেন।

এ ৫০ জন শিক্ষক ও শিক্ষিকাদের বিল করার নামে ৩/৪ ধাপে উৎকোচ গ্রহন করা হয়। এখনো ১৩ জন শিক্ষকরে বিল বাকী যারা তাদের চাহিদা মতো টাকা দিতে পারেনি। প্রাক প্রাথমিক শিক্ষক শেখ মো: ফজলুর রহমান রিপন অফিসে বসে মোবাইলের মাধ্যমে শিক্ষকদের ডেকে এসব টাকা আদায় করে।

এ ব্যপারে শিক্ষক শেখ মো: ফজলুর রহমান রিপন শিক্ষকদের কাছ থেকে উৎকোচর নামে টাকা আদায়ের ব্যাপারে সত্তোতা স্বীকার করে বলেন আমি যাহা করেছি সবই আমার উর্দ্ধেতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে করেছি। এ ব্যাপরে উপজেলা শিক্ষা অফিসার আনিছুর রহমান বলেন, বিল করতে টাকা লাগেনা যদিও লাগে অল্প কিছু। কিন্তু আমি তাদের কে শিক্ষকদের কাছ থেকে কোন টাকা আদায় করতে বলিনি। এ ব্যাপরে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার অশোক কুমার সমাদ্দার বলেন বেতন বিল করতে টাকা লাগবে কেন। যদি ওরা এ ভাবে শিক্ষকদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে থাকে তাহলে আপনি পত্রিকায় রিপোর্ট করেন আমি ওদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *