রাবির বাসে কমেছে ৪টি সিডিউল : ভোগান্তিতে শিক্ষার্থীরা

আবু সাঈদ সজল, (রাবি): রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের (রাবি) নতুন অফিস সময়ের সাথে সঙ্গতি রেখেই পরিবর্তন করা হয়েছে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মীদের পরিবহন ব্যবস্থার বাস সিডিউল, বাদ পড়েছে ৪টি বাস শিডিউল।

আর এই পরিবর্তিত শিডিউলে ট্রিপ কমিয়ে দেওয়ায় পরিবহন ব্যবস্থায় ভোগান্তি বাড়বে বলে দাবি করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি পর্যাপ্ত বাস না থাকায় পূর্বের শিডিউল অনুযায়ী পরিবহনে অনেক ভোগান্তি পোহাতে হতো।

আর নতুন করে ট্রিপ কমিয়ে আনায় চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হবে তাদের। তবে কর্তৃপক্ষ বলছে কোন সমস্যার সৃষ্টি করবেনা নতুন এই সিডিউল। সুমন মোড়ল নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, যারা বিশ^বিদ্যালয়ে আবাসিক সুবিধা ভোগ করেন না তারা নগরীর ভাড়া-বাড়িতে বা মেসে থাকেন। সেসব শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের জন্যে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক বরাদ্দকৃত পরিবহণ সংখ্যা অপ্রতুল সেখানে বাসের ট্রিপ কমিয়ে আনলে আরো বেশি ভোগান্তিতে পড়বে শিক্ষার্থীরা।

তবে পরিবহন দপ্তরের প্রশাসক মাঈনুল ইসলাম বলেন, বিশ^বিদ্যালয় পরিচালনার নতুন সময়সূচীর সাথে তালমিলিয়ে বাস শিডিউল পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। শিক্ষার্থীদের ক্লাসের সময়সূচী পরিবর্তন হওয়ায় বাস শিডিউল পরিবর্তনে কোন ভোগান্তি পোহাতে হবে না তাদের। এছাড়া, কোন ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হলে বা নির্দিষ্ট রুটে বাসের প্রয়োজন হলে তার ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানান তিনি।

সূত্রে জানা যায়, পূর্বে দৈনিক মোট ৮ বার বাসগুলো বিভিন্ন রুটে চলাচল করলেও এখন তা দৈনিক ৫ বার চলাচল করছে। আগে প্রায় ৩৯ টি বাস চলাচল করলেও বিভিন্ন সময়ে প্রায় ১৫টি বাস অকেজো হওয়ায় এখন চলাচল করবে ২৬টি।

মাঝে মধ্যে ২ একটি বাস মেরামত করে চালানো হয়। উল্লেখ্য,এদিকে বাস সিডিউল পরিবর্তন, ডাইনিং ফি বাড়ানোর প্রতিবাদে  বিক্ষোভ  মিছিল করেছে প্রগতিশীল ছাত্র জোট। শনিবার দুুপুরে বিশ^বিদ্যালয় ছাত্র ইউনিয়ন টেন্ট থেকে মিছিলটি বের হয়ে টুকিটাকি চত্বরে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়।

This website uses cookies.