সৈয়দপুরে পৃথক ধর্ষণের চেষ্টায় আটক ১

আবু মোতালেব হোসেন, (নীলফামারী): পৃথক দুটি ধষর্নের ঘটনা ঘটেছে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার পল্লীতে। এঘটনায় অভিযুক্ত ২জনের ১জন আটক হলেও অপরজনকে সোমবার পর্যন্ত আটক করতে পারেনি পুলিশ।

তৃতীয় শ্রেনীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগে নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের গোলাহাট ইসলামবাগ এলাকা থেকে মান্নান ওরফে মুন্নাকে (৫০) নামের এক ব্যাক্তি আটক করা হয়েছে।

রবিবার সকালের দিকে শহরের রেলওয়ে কারখানা গেটবাজার এলাকার একটি স্কুলের পিছনে এ ঘটনা ঘটে। এর একদিন আগে শুক্রবার শহরের বাঁশবাড়ি গফুর বস্তিতে ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টার ঘটনা ঘটে। ঘটনায় জড়িত ধর্ষক গা ঢাকা দেয়ায় সোমবার পর্যন্ত গ্রেফতার হয়নি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, রবিবার সকালে ইসলামবাগ এলাকার তৃতীয় শ্রেণির স্কুল ছাত্রীকে (৯) ফুসলিয়ে মান্নান কারখানা গেটবাজার এলাকা হয়ে সাহেবপাড়া শামসুল হক মেমোরিয়াল স্কুলের পিছনে নিয়ে যায় ওই শিশুকে।

এ সময় শিশুটিকে ধর্ষণের চেষ্টাকালে এলাকার লোকজন তা দেখে ফেলে। পরে মুন্নাকে আটক করে দেয়া হয় গণধোলাই। এ ঘটনার পর শিশুটির পরিবার তাকে এলাকায় নিয়ে এসে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। এ ব্যাপারে সৈয়দপুর থানা ওসি আমিরুল ইসলাম ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার (৯ জুন) সকালে শহরের বাঁশবাড়ি গফুর বস্তি এলাকায় ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টার ঘটনা ঘটে। ওই এলাকার হাসান (১৮) এ ঘটনা ঘটায়। পরে এলাকার লোকজন বিষয়টি জানতে পারলে সে পালিয়ে যায়। থানায় এ ঘটনায় মামলা হলেও আসামী এখনও ধরা পড়েনি।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *