স্বাগতম হে মাহে রমজান

প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: রহমত বরকত মাগফেরাতের এই মাহে রমজান। আল্লাহর পক্ষ থেকে বান্দার জন্য শ্রেষ্ঠ উপহার এই মাহে রমজান। যার ঘোষণা হাদীসে কুদসিতে এসেছে:-

উচ্চারণ:- কুল্লু আমালিন ইবনু আদামি লাহু ইল্লাস সিয়ামু ফাইন্নাহু লি ওয়া আনা আযযি বিহী (সহিহ মুসলিম)।

অর্থ : মানুষের প্রতিটি কাজ তার নিজের জন্য হয়ে থাকে, কিন্তু রোজা শুধু আমার জন্য আমি তার প্রতিদান দিব। (সহিহ মুসলিম)।

কেউ কেউ এ অর্থও করেন থাকেন:- রোজা আমার জন্য রাখা হয়; আমি নিজেই এর প্রতিদান। সুতরাং এত বড় নেয়ামতের মাস রমজান; যার করণীয় সম্পর্কে আমাদের প্রস্তুতি নেয়া দরকার।

তাই এই কুরআন নাযিলের মাসে বিশ্ব মুসলিম রমজানের প্রস্তুতিতে রমজানকে স্বাগত জানিয়ে ব্যক্তি, সমাজ, পাড়ায়, মহল্লায় সেমিনার সিম্পোজিয়াম, সভা-সমাবেশ করে থাকে সবাইকে এ বার্তা পৌছে দেয়ার জন্য যে, মাহে রমজান সমাগত।

ওহে বিশ্ব মুসলিম এ মাসে:- দুনিয়ার সকল প্রকার খারাবি থেকে নিজেকে তথা সমাজকে মুক্ত রাখো; আল্লাহর নৈকট্য অর্জনের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করো; রহমত বরকত মাগফেরাত অর্জনের জন্য প্রস্তুতি সম্পন্ন কর।

প্রস্তুতিগুলো কেমন হওয়া চাই:- রমজান মাস পাওয়ার জন্য আমরা রজব মাস থেকেই আল্লাহর কাছে ফরিয়াদ করে আসছি:- বর্ণিত আছে, যখন রজব মাস শুরু হত, তখন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এই দু’আ করতেন:-

উচ্চারণ : আল্লাহুম্মা বা-রাকলানা-ফি- রাজাবা ওয়া শা’বান ওয়া বাল্লিগনা- রামাদা-ন।

অর্থ : হে আল্লাহ! তুমি আমাদের জন্য রজব ও শা’বান মাসে বরকত দাও এবং আমাদেরকে রমযান পর্যন্ত পৌঁছিয়ে দাও। অথ্যাৎ আমাদের নেক হায়াত দান কর, যাতে আমরা রমযান মাস পেয়ে রমযানের বরকত লাভ করতে পারি। সুতরাং আমাদের রমজানের প্রস্তুতি নেয়া একান্ত প্রয়োজন। মুমিন মুসলমানরা এখন সেই প্রস্তুতিতে ব্যস্ত। কেউবা প্রস্তুতি নিয়েছেন।

যারা খতমে কুরআনের মাধ্যমে তারাবীহ আদায় করবেন তারাও অনেক আগে থেকেই প্রস্তুত। যারা ইজতেমায়ী ভাবে ইফতারের আয়োজন করবেন তারাও প্রস্তুত। প্রস্তুত সকল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান তথা উপাসনালয়। ধর্ম প্রাণ মুসলমানদের মধ্যে যারা এখনও প্রস্তুতি নেয়নি তারাও প্রস্তুতির পথে। যাতে সবাই ইবাদতে-ইবাদতে কাটিয়ে দিতে পারে পুরো রমজান মাস।

হাদীস শরীফে এসেছে:- উম্মাহাতুল মুমিনীন হযরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা বলেন, যখন রমজান সমাগত তখন হযরত রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পবিত্র রমজানুল মোবারকে ইবাদত-বন্দেগীর জন্য কোমর বেঁধে লেগে যেতেন। তাইতো সমাজের সর্বস্তরে রমজানকে বরণ করতে তথা রমজানের ব্যাপারে সচেতনা তৈরি করতে এবং রমজানের যথাযথ প্রস্তুতি নিতে বিশ্ব মুসলিমের নিকট রমজানের আগমনী বার্তা পৌছিয়ে দেয়া ঈমানের একান্ত অপরিহার্য দাবি। জাগো নিউজের পক্ষ থেকে আহলান সাহলান মাহে রমজান মুরাবক হো মাহে রমজান সুস্বাগতম হে মাহে রমজান। সুত্র:- সংগ্রহ

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *