খাগড়াছড়িতে জোড়া খুনের ঘটনায় অপপ্রচারের অভিযোগ

আল-মামুন, (খাগড়াছড়ি): খাগড়াছড়িতে জোড়া খুনের ঘটনায় একটি স্বার্থনীশি মহল অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এমপি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা সমর্থিত অংশ।

সাংবাদিকদের দেওয়া এক বিবৃতিতে সংগঠনটি এ অভিযোগ আনেন। বৃহস্পতিবার খাগড়াছড়ি শপলা চত্ত্বরে মানবববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলের ইঙ্গিত করে অভিযোগ করা হয়, সদর উপজেলার থলিপাড়ায় পারিবারিক বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় স্থানীয় গ্রামবাসী চিরঞ্জিব ত্রিপুরা (৫৫), তার পুত্র কর্ণ ত্রিপুরা (৩০) হত্যাকান্ডের ঘটনায় খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের নামে একটি স্বার্থান্বেষী মহল বর্তমান সরকারের উন্নয়নকে বাঁধাগ্রস্থ এবং সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার অপপ্রয়াসে চালাচ্ছে অভিযোগ করেন।

এতে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের দুই সদস্য খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু ও খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খোকনেশ^র ত্রিপুরাকে জড়িয়ে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন এবং ষড়যন্ত্রমূলক অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে উল্লেখ করা হয়।

খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মী এ ধরনের অপপ্রচারে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে হত্যাকান্ডের প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটন, প্রকৃত দোষীদের গ্রেফতার পূর্বক আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির জোর দাবি জানান অংশটি।

মূলত: পারিবারিক জের ধরে এ হত্যাকান্ডের ইস্যুতে স্বার্থান্বেষী মহলটি ন্যায় বিচারকে বিঘিœত করতে থলিপাড়ার নিরীহ গ্রামবাসীদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে শহরে এনে বিভিন্ন কর্মসূচিতে জড়িয়ে দিয়ে  জেলার পাহাড়ী-বাঙালির সম্প্রীতি বিনষ্ঠ করে ফায়দা লুটার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

এ বিষয়ে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ শান্তি সহাবস্থান বজায় রাখার লক্ষ্যে ও পিতা-পুত্র হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত করনে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে  স্বার্থান্বেষী মহলের এসব অগণতান্ত্রিক কার্যক্রম বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবী জানিয়েছেন।

এ নিয়ে কোন প্রকার অপরাজনীতির বিরুদ্ধে খাগড়াছড়ি জেলার সর্বস্তরের জনসাধারন, জেলা আওয়ামীলীগ, সকল সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের এবং স্থানীয় প্রশাসনকে সজাগ থাকার আহবান জানিয়েছেন খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগ। খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগ নেতা নির্মলেন্দু চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ অভিযোগ করা হয়।

প্রসঙ্গত: গত ১১ মে বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে জেলা সদরের থলিপাড়া এলাকায় কালিবন্ধু ত্রিপুরা ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর হামলায় ব্যবসায়ী চিরঞ্জয় ত্রিপুরা ও তার ছেলে কর্ণ জ্যোতি ত্রিপুরা নিহত এবং চিরঞ্জয় ত্রিপুরার স্ত্রী ভবেলক্ষী ত্রিপুরা ও ছেলে কর্ণ জ্যোতি ত্রিপুরার স্ত্রী বিজলি ত্রিপুরা গুরতর আহত হন।

এ ঘটনায় নিহত চিরঞ্জয় ত্রিপুরার ছেলে নিহার ত্রিপুরা বাদী হয়ে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের দুই সদস্য খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু ও খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খোকনেশ^র ত্রিপুরা এবং ইউপি সদস্য কালিবন্ধু ত্রিপুরাসহ ৩৪ জনের নাম উল্লেখ করে আরো ২০/৩০ জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামী করে মামলাটি দায়ের করা হয়। এ ঘটনার সাথে জড়িত সাতজনকে পুলিশ আটক করে। বাকী আসামীদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে সূত্র জানায়।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *