রাবিতে যত্রতত্র খাবার হোটেল স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে অধিকাংশ শিক্ষার্থী

আবু স্ঈাদ সজল, (রাবি প্রতিনিধি): রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ক্যাম্পাসে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে যত্রতত্র খাবারের হোটেল। নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের এসব খাবার খেয়ে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৩৫ হাজার শিক্ষার্থী।

চিকিৎসকরা বলছেন, অস্বাস্থ্যকর এসব খাবার খেলে ডায়রিয়া, আমাশয়, গ্যাস্টিক, আলসারসহ বিভিন্ন রোগ হতে পারে। এদিকে অবৈধ এসব দোকান উচ্ছেদে প্রশাসনের নেই কোনো হস্তক্ষেপ।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বর, মিডিয়া চত্বর, লালন চত্বর, তৃতীয় ও চতুর্থ বিজ্ঞান ভবনসহ বিভিন্ন স্থানে অন্তত ৩৫-৪০ টি খোলা খাবারের দোকান গড়ে উঠেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণকেন্দ্র টুকিটাকি চত্বরেই রয়েছে ৭-৮টি খাবারের দোকান।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো ধরনের অনুমোদন ছাড়াই খুলে বসা এসব দোকানের খাবারমান অত্যন্ত নি¤œমানের। সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী আবু বকর অন্তু বলেন, ‘অন্য জায়গার তুলনায় টুকিটাকিতে খাবারের মান খুবই খারাপ আবার দামও বেশি। এখানে রান্নার কাজে যে তেল ব্যবহার করা হয় সেটা দুই-তিন আগের ব্যবহৃত তেল। যেটা স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।

এসব খাবার খেয়ে প্রায়ই অসুস্থ হন বলেও জানান তিনি। এবিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রের প্রধান চিকিৎসক ডা. মো. তবিবুর রহমান শেখ বলেন,রাস্তার পাশে গড়ে ওঠা এসব নোংড়া দোকানের খাবার খেলে গ্যাস, বুক জালাপোড়া, আলসারসহ বিভিন্ন ধরনের রোগ হতে পারে। এমকি দীর্ঘদিন যাবত এ রকম তৈলাক্ত খাবার খেলে মারাক্তক দূর্ঘটনা ঘটার সম্ভবনা হতে পারে।

এসব ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. মজিবুল হক আজাদ খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ক্যাম্পাসে যে সব ভাসমান হোটেল গড়ে উঠেছে এগুলো সব অবৈধ। এরা অবৈধভাবে এখানে ব্যবসা করছে। তিনি আরও বলেন অতি শিঘ্রই এদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়াও তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের এই সব নোংড়া খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দেন।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *