খানসামায় ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় মানববন্ধন পালন

মোঃ তারিকুল ইসলাম চৌধুরী,খানসামা (দিনাজপুর): দিনাজপুরের খানসামায় প্রধান শিক্ষক ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার টংগুয়া গ্রামের মাদার পীর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

এ ঘটনায় গত রবিবার শিক্ষার্থীর অভিভাবক ও এলাকাবাসী বিক্ষোপে ফেটে পড়ে এবং মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

জানা গেছে, উপজেলার মাদার পীর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আব্দুল হানিফ (৫৫) ১২ এপ্রিল রাত দশটায় বিদ্যালয় ভবনে শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট শেষে প্রতিদিনের ন্যায় পার্শ্ববতী দুখুরী গ্রামের হাকিমদ্দিনের মেয়ে (১২) কে বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার সময় পথের মধ্যে জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে।

এ সময় মেয়েটি চিৎকার করলে এলাকাবাসী ছুটে আসে এবং ধর্ষক শিক্ষক পালিয়ে যায়। পরে ঘটনার ধামাচাপা দিতে ধর্ষক নানা অপচেষ্টা চালায়। এদিকে ঘটনার সুষ্ঠু বিচার পেতে অভিভাবক ও এলাকাবাসী ইউনিয়ন পরিষদে অভিযোগ দাখিল করে এবং ঘটনাটি আরও ছড়াতে থাকে।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে অভিভাবক ও এলাকাবাসী মানববন্ধন কর্মমসূচির ডাক দেয়। কর্মসূচিতে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য নুর আয়না আক্তার নুরী সহ স্থানীয় সংগঠন যুব শক্তি উন্নয়ন সংঘ ও যুব শান্তি সংঘের ইউনুস আলী, সামিউল ইসলাম, সাহাজ উদ্দিন, খলিলুর রহমান ও রায়হান হক ধর্ষক শিক্ষকের ন্যায্য বিচার দাবীতে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন।

বর্তমানে ধর্ষক শিক্ষক হানিফ পলাতক রয়েছে। একটি গোপন সূত্রে জানা যায়, মাদার পীর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আব্দুল হানিফ ইতিপূর্বে অনেক মেয়েরে এই সর্বনশ করে আসছেন, অনেক মেয়ে লোকো লজ্জায় প্রকাশ করেনি। এ ব্যাপারে খানসামার পুলিশ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল মতিন প্রধানকে প্রশ্ন কররে তিনি বলেন, বিষয়টি আপনার কাছেই এই প্রথম শুনলাম। এই বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ থানায় কোন প্রকার অভিযোগ দাখিল করেনি।

This website uses cookies.