যারা চাপ দিচ্ছে তাদেরই ট্রেড ইউনিয়ন নেই : প্রধানমন্ত্রী

প্রথম সকাল ডটকম: দেশের রফতানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকায় (ইপিজেড) অবস্থিত কারখানাগুলোতে ট্রেড ইউনিয়ন করা নিয়ে সরকারকে চাপ দেয়ায় আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থাসহ (আইএলও) বিভিন্ন ক্রেতা সংগঠনগুলোর সমালোচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘যারা ট্রেড ইউনিয়ন করা নিয়ে আমাদের ওপর এত চাপ দিচ্ছে তাদের ওখানে তো ট্রেড ইউনিয়ন নেই। তাদের ওখানকার ট্রেড ইউনিয়নগুলোর অবস্থা দেখে এরপর ব্যবস্থা নেন।

সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর অনির্ধারিত আলোচনায় ইপিজেডে ট্রেড ইউনিয়ন বিষয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু আলোচনার সূত্রপাত করলে প্রধানমন্ত্রী তার উদ্দেশ্যে এ মন্তব্য করেন। বৈঠকে উপস্থিত মন্ত্রিপরিষদের একাধিক সদস্য জাগো নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এ সংক্রান্ত একটি আইন আগামী জাতীয় সংসদে উঠার কথা থাকলেও তা আরও যাচাই-বাছাই করার পরামর্শ দিয়েছেন তিন মন্ত্রী। তারা বলেন, আইনটিতে আরও কিছু পয়েন্ট সংযোজন-বিয়োজন করে এরপর সংসদীয় কমিটিতে উপস্থাপন করা যেতে পারে।

আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন।

এ বিষয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু  বলেন, আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও)-সহ বিভিন্ন ক্রেতা সংগঠনগুলোর দাবি অনুযায়ী আমরা ইপিজেড ও অন্যান্য পোশাক কারখানায় শ্রমিকদের স্বার্থে ‘ওয়ার্কার্স অয়েলফেযার অ্যাসোসিয়েশন’ করার প্রক্রিয়া চালাচ্ছি।

‘এত তড়িঘড়ি করে হয়ত সম্ভব হবে না, তবে ধীরে হলেও আমরা পদক্ষেপ নিচ্ছি’- বলেন প্রতিমন্ত্রী। আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তারা (ক্রেতা দেশ ও সংগঠন) আমাদের ক্রেতা ও উন্নত দেশ। এ ক্ষেত্রে ইচ্ছা করলেই আমরা আমাদের জায়গায় স্থায়ীভাবে থাকতে পারি না।

গরীব দেশ বলেই তারা আমাদের ওপর অনেক সময় খবরদারি করে। ‘বাজার ধরে রাখতে আমরা আইএলও-এর চাহিদা মোতাবেক ধীরে ধীরে পদক্ষেপ নিচ্ছি’- বলেন তিনি।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *