নরসিংদীতে বাস-মাইক্রোবাস মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১১

প্রথম সকাল ডটকম (নরসিংদী): নরসিংদীর বেলাবোতে যাত্রীবাহী বাস ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ ১১ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছেআরো ১০ জন।  রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে বেলাবো উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহা-সড়কের দড়িকান্দি নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা সবাই মাইক্রোবাসের যাত্রী। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ঘাতক বাসচালকের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ। নিহতদের মধ্যে ৬ জনের পরিচয় জানা গেছে।

তরা হলো কিশোরগঞ্জের নিকলী থানার ছাতীর চর গ্রামে ফালু মিয়ার ছেলে মানিক মিয়া (৪৫), তার স্ত্রী মাফিয়া (৩৫), তার ছেলে অজ্ঞাতনামা, বধু মিয়ার ছেলে হাসান মিয়া, শফদর আলীর ছেলে হীরা (৩২), জান্নান (৩৮)। বাকিদের পরিচয় জানা যায়নি। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানিয়েছে, সকালে ঢাকার কামরাঙ্গীর চর থেকে ১৪জন যাত্রী নিয়ে কিশোরগঞ্জের নিকলী থানার ছাতীর চর গ্রামে যাচ্ছিল একটি হাইয়েস মাইক্রোবাস।

মাইক্রোবাসটি বেলাবো উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহা-সড়কের দড়িকান্দি বাজারে পৌঁছুলে বিপরীত দিক থেকে আসা অগ্রদুত পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস সিএনজি চালিত একটি অটোরিকশাকে ওভারটেক করার সময় মাইক্রোবাসের মুখমুখি সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় মাইক্রোবাসটি দুমড়েমুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থালেই দুই শিশু ও ৪ নারীসহ ১১ জন মারা যায়।

আহত হয় কমপক্ষে ১০ জন। খবর পেয়ে পুলিশ, দমকলবাহিনী ও স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ভৈরবসহ আশপাশের হাসপাতালে পাঠায়। দুর্ঘটনার পর ঢাকা-সিলেট মসহাসড়কে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় এক ঘণ্টা পর দুর্ঘটনাকবলিত যানবাহন সরিয়ে নিলে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়।

খবর পেয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মো. মোজ্জাম্মেল হক ও উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা উম্মে হাবিবা, ভৈরব হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মিজানুল হক, বেলাবো থানার ওসিসহ প্রসাশনের ঊর্ধ্বতন ব্যক্তিরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। দূর্ঘ টনায় হতাহতের সত্যতা নিশ্চিত করে বেলাবো থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আমিন খান পরিবর্তন ডটকমকে জানান, ঘটনা তদন্তে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে অতিরিক্তি জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে দিয়ে এক সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *