ছাতকে এসএসসি পরীক্ষার্থীর উপর হামলার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

চান মিয়া, ছাতক (সুনামগঞ্জ): ছাতকের পালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র ও এসএসসি পরীক্ষার্থী হাসান আহমদের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে এক মানববন্ধন কর্মসুচী পালন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার সকালে জলালপুর-লামারসুলগঞ্জ সড়কের পালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ঘন্টা ব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করা হয়। এ সময় হামলায় জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী সম্বলিত বিভিন্ন পেল-কার্ড বহন করেন শিক্ষার্থীরা।

বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধন চলাকালে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন, বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী আহসান উদ্দিন, মিলাদ আহমদ, সজল সুত্রধর, তাহমিদুর রহমান, হাবিবুর রহমান, এবাদ উল¬াহ, সাইফুল ইসলাম, নুর আমিন মনোয়ার, আমিনা বেগম, সামিয়া জাহান রানী, তাসরিয়া বেগম, পানামা বেগম, নাফিয়া বেগম, দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থী রিহাব আহমদ, সাহেল আহমদ, ফয়ছল আহমদ, মোস্তাক আহমদ, সাদিকা বেগম, মুন্নি বেগম, নবম শ্রেনীর শিক্ষার্থী ইজ্জাদুর রহমান, জাবের আহমদ, রনি আহমদ, তাহিমা বেগম, অষ্টম শ্রেনীর শিক্ষার্থী আজাহার উদ্দিন, মারজান আহমদ, আলী হাসান জয়, মোহাম্মদ আলী, শিপা বেগম প্রমুখ।

সভায় বক্তারা এসএসসি পরীক্ষার্থী হাসান আহমদের অবস্থা আশংকাজনক উলে¬খ করে বলেন, চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের ওষুধ কিনতে এসে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে সান্ত্রসী হামলার শিকার হয় হাসান আহমদ। সন্ত্রাসীরা পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে তাকে এলাপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে মৃত ভেবে ফেলে যায়। হাসানের উপর হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও সর্বোচ্চ শাস্তি দাবী করেন তারা।

উলে¬খ্য গত ২৬ ডিসেম্বর পালপুর গ্রামের সংঘর্ষের ঘটনায় আহত কয়েকজনকে নিয়ে চিকিৎসার উদ্দেশ্যে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যায় হাসান আহমদ। রোগীদের ভর্তি করে ডাক্তারী চিকিৎসাপত্র নিয়ে ওষুধ ক্রয় করতে এসে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয় এসএসসি পরীক্ষার্থী হাসান আহমদ। সন্ত্রাসীরা তাকে এরাপাতারী কুপিয়ে ও পায়খানার রাস্তায় ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। রোগী ভর্তি করতে এসে হাসান এখন নিজেই মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *