জেনে নিন কোন রঙের পোশাক কেন পরবেন

6

প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: কোন রঙের পোশাক, কেন পরিধান করবেন সেটা একটু জেনে নিন।

নীল : আবেগের রঙ নীল! যেকোনো আবেগ প্রকাশের জন্য নীল হতে পারে পারফেক্ট রঙ। বর্ষার দিনগুলোতে যেকোনো বয়সী মানুষের পোশাকের রঙ হতে পারে নীল।

গাঢ় নীল রঙের জমকালো পোশাক, জুতা, ব্যাগ আর চোখের ওপর নীলাভ আইশ্যাডো ব্যবহার করতে পারেন তরুণীরা। যেকোনো পার্টিতে হয়ে উঠতে পারেন নীলাঞ্জনা!

লাল : উৎসবের রঙ লাল। তবে লাল রঙের পোশাক আবার সবাই পছন্দ করেন না। কিন্তু বর্ষায় লালরঙের পোশাক হতে পারে আপনার ট্রেন্ড। ছোট ছেলেমেয়েদের লাল পোশাকে রাজকীয় ভাব আসে।

কমলা : কমলা রঙটা এখন তারুণ্যের প্রতীক। আর বৃষ্টির দিনে কমলা রঙ হয়ে উঠতে পারে যেকারো পছন্দের পোশাকের রঙ। বৃষ্টির স্যাঁতসেঁতে ভাবকে দূর করতে তরুণীরা পরতে পারেন কন্ট্রাস্ট কমলা বা কমলা রঙের পোশাক। পোশাকে কমলার শেড বা গাঢ় কমলাও হতে পারে আপনার পছন্দের পোশাকের রঙ।

বেগুনি : সাতরঙা রঙধনুর সঙ্গে আমাদের কমবেশি পরিচয় আছে। খেয়াল না করলে এরপরে খেয়াল করে দেখবেন, এই রঙধনুর প্রথম রঙ হচ্ছে বেগুনি। তাই বৃষ্টির দিনে বেগুনি রঙের আভায় সাজটা হতে পারে দুর্দান্ত আবেদনময়।

ঘন বর্ষার মাঝে বেগুনি রঙের পোশাকে আপনি হতে পারেন উজ্জ্বল। গায়ের রঙ ফর্সা হলে বেগুনিটা আপনার পছন্দের রঙ হতে পারে। বেগুনি কামিজ ও ফতুয়ার বেগুনির আভা রাখতে পারেন। জুতো, ব্যাগ ইত্যাদিতেও বেগুনির ছোঁয়া থাকা দরকার। তাহলেই বর্ষার সাজটা ষোলআনা পূর্ণ হবে।

আসমানি : আকাশ ছুঁয়ে দেখার ইচ্ছেটা সবারই হয়। কিন্তু ক’জন পারেন! আদৌ কী কারো পক্ষে সেটা সম্ভব। তবে সে আশা পূরণের জন্য ঘন বর্ষায় পরিধান করতেই পারেন আসমানি রঙের পোশাক। অনেকে আসমানি রঙের জুতো পরে এ সময়ে ট্রেন্ডকে ধারণ করছেন। ফতুয়া, কুর্তা, শাড়িতে আসমানি রঙ বর্ষায় আলো ছড়াতে পারে। তরুণরাও বেছে নিতে পারেন হালকা আসমানি রঙে শার্ট বা পাঞ্জাবি।

সবুজ : সবুজ আমাদের প্রিয় রঙ। এর পেছনে আমাদের চারপাশের অবদান অনেক বেশি। চোখ মেললেই আমরা সবুজ প্রকৃতি দেখি। দেখি দিগন্ত ছোঁয়া সবুজের হাতছানি। পুরো সবুজ রঙের পোশাক না হলেও, লাল-সবুজের মিশ্রণে যেকোনো পোশাকই হতে পারে মনকাড়া। নারী-পুরুষ, তরুণ-তরুণী যে কেউ সবুজের আবহে লালের ছোঁয়ায় পোশাকে আনতে পারেন বৈচিত্র্য। বর্ষার ভেজা ভেজা আবহে মনটা সতেজ হবে।

হলুদ : বর্ষার ফুল কদমের রঙ হলুদ! পরনে হলুদ শাড়ি, খোপায় হলুদ ফুল, দেখতে কেমন লাগবে? নিঃসন্দেহে যে কেউ বলবেন- বাহ! এরপর আর এ রঙের পোশাকের গুণ সম্পর্কে কিছু বলার প্রয়োজন নেই।

আর জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের হিমু চরিত্রের কল্যাণে হলুদ পাঞ্জাবির আলাদা কদর যে বেড়েছে তা আর বলতে! তাই হলুদ রঙের পোশাক সম্পর্কে বেশি কিছু বলার নেই, বর্ষার দু’মাসে আপনার কোনো দিনের পোশাকই হলুদ থাকবে না, তা মনে হয় আপনি নিজেও মানতে পারবেন না।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *