আফগানিস্তানে আইএসের প্রশিক্ষণ ক্যাম্প

প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: মাথা ও মুখ ঢেকে হাতে বন্দুক ও গ্রেনেড লাঞ্চার এবং পিছনে কালো রঙ্গের জিহাদি পতাকা-এই বেশেই সাধারণত আইএস সদস্যদের প্রশিক্ষণ নিতে দেখা যায়। সম্প্রতি প্রকাশিত আইএসের ছবিগুলোতে সবকিছুই বরাবরের মতো থাকলেও ব্যতিক্রমী একটি উপাদানের কারণে ছবিগুলো দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

ছবিগুলোতে চিরাচরিত ইরাক বা সিরিয়ার মরুভূমির পরিবর্তে পাকিস্তান সীমান্তবর্তী পূর্ব আফগানিস্তানের পাহাড় বেষ্টিত অঞ্চলের চিত্র দেখা যায়। আইএস সম্প্রতি পাকিস্তান সীমান্তবর্তী আফগানিস্তানের ভূখ- দখল করেছে যার নাম ‘উইলিয়াত খোরাসান’ বা খোরাসান প্রদেশ।

এক সময় এই অঞ্চলটি আলকায়েদার ঘাঁটি ছিল। সেখানে আইএস তাদের সদস্যদের জন্য প্রশিক্ষণ ক্যাম্প স্থাপন করেছে বলে জানা গেছে। ঐ অঞ্চলে অবস্থানরত জঙ্গিদল হাক্কানি নেটওয়ার্ক ও তালেবানের একাংশ আইএসের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করেছে। এখানকার একটি প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের নাম রাখা হয়েছে ‘শেখ জালালুদ্দিন’ বা জালালুদ্দিন হাক্কানির নামে। হাক্কানি নেটওয়ার্কের প্রতিষ্ঠাতা শেখ জালালুদ্দিন গত বছর নিহত হন।

টুইটারে প্রকাশিত নতুন ছবিতে দেখা যায়, ৪০ জনের একটি আইএস গ্রুপ নতুন এই আইএস প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে অস্ত্র ও সার্টিফিকেট গ্রহণের মাধ্যমে তাদের প্রশিক্ষণ শেষ করেছে। আইএস দাবি করছে আফগানিস্তানে এরকম আরো ৩ টি প্রশিক্ষণ ক্যাম্প আছে তাদের। এর একটির নাম তাদের কথিত খলিফা আবু বকর আল-বাগদাদির নামানুসারে রাখা হয়েছে। তবে আফগানিস্তানে আইএসের উপস্থিতির কথা অস্বীকার করেছে তালেবান। তালেবান আইএসকে জিহাদি নয় বরং সন্ত্রাসী গোষ্ঠী বলে মনে করে।

This website uses cookies.