স্বর্গের যমদূত

মিশুক সেলিম

আমি অফুরন্ত নীল আকাশের ঝলমলে
লাল-সবুজ রঙে রাঙানো এক রক্তরেখা,
বহুদূর দেশ থেকে সদ্য হাজির মায়াবী
আগন্তুকের মতো চমকে দেয়া নির্ভিক সেনা,
আমি নিস্তব্ধতাকে ভড়কে দেয়া ভারী কন্ঠস্বর।

আমি প্রানভরা নিশ্বাসের সুশীতল নির্মল হাওয়া,
ব্যাবিলনের শূন্যউদ্যান,গর্জে উঠা কালো মেঘ,
আমি প্রচন্ড ক্রোধে ফেঁটে পড়া এক সূর্যদেব।

আমি রাজ দেয়ালের ওপারে ভয়ানক উত্তেজনা
মৃদু হাসির ঝলকে আলোকিত শিশুর দোলনা,
ভয়ংকর লজ্জায় শিহরে উঠা মোল্লা বাড়ির
অষ্টাদশীর চাপা কন্ঠ,অনিয়ম করিব ধ্বংস।

আমি সদ্য বিবাহিতের অসময়ে আচমকা চুম্বন,
আজিকে সব বাধাকে করিব নিমিষে শত খন্ডন,
আমি প্রচন্ড শব্দে প্রতিধ্বনি হওয়া দিক নির্দেশনা
আমার আছে দৃঢ় প্রত্যয় , বাঁচার অদম্য বাসনা।

আমি মুক্তির আনন্দে ভরপুর, যেন সাতচূড়া
স্বর্গের গিরিশৃঙ্গ থেকে নেমে আসা যমদূত,
তারুন্যের দাপটে তাড়াবো তোমাদের যত ভূত।

This website uses cookies.