বিদ্যালয়ের টাকা আত্মসাত করায় শরীয়তপুর মেয়র বরখাস্ত

4প্রথম সকাল ডটকম (শরীয়তপুর): শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌরসভার মেয়র আবদুর রব মুন্সীকে মেয়র পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় এই বরখাস্তের আদেশ দেয়। এর আগে বিদ্যালয়ের জমি বিক্রির টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের দায়ের করা মামলায় গত ৩০ জুন মেয়রসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

শরীয়তপুরের জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ মোহাম্মদ আতাউর রহমান দুদকের দায়ের করা অভিযোগটি আমলে নিয়ে এই পরোয়ানা জারি করেছিলেন। মেয়র বর্তমানে পলাতক রয়েছেন। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবীসসুত্র ও মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ থেকে জানা যায়, শরীয়তপুর সদর উপজেলার আঙ্গারিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের নামে রেকর্ডভুক্ত উত্তর মধ্যপাড়া মৌজার ৩ একর ৭১ শতাংশ জমি বিক্রি করা হয়।

সরকারি হিসাব অনুযায়ী যার সর্বনিম্ন বাজারদর ছিল ৪ কোটি ৫৭ লাখ ৪২ হাজার ৪৪৫ টাকা। ওই জমি বিক্রির জন্য বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে দরপত্র আহ্বান করেন। তিনটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নামমাত্র মূল্য দেখিয়ে দরপত্র দাখিল করে।

ওই তিনটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মধ্য থেকে জে সরদার করপোরেশন নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছে বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি ১ কোটি ৫০ লাখ টাকায় জমিটি বিক্রি করে। ২০১২ সালের ৩০ ডিসেম্বর প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন জে সরদার করপোরেশনের মালিক জাহাঙ্গীর আলম ও তাঁর ভাই আবদুস সালামের নামে জমিটি নিবন্ধন করে দেন।

২ মাস ১৮ দিন পরে জমি গ্রহীতাগণ ৭০ লাখ ও ৮০ লাখ টাকার দুটি চেক দেন। ওই চেক দুটি বিদ্যালয়ের তহবিলে জমা করা হলে চেকের সই মিল না থাকায় এবং ওই হিসাব নম্বরে পর্যাপ্ত টাকা না থাকায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ চেক দুটি ফেরত দেয়। দুর্নীতি দমন কমিশনের ফরিদপুর আঞ্চলিক কার্যালয় বিষয়টি তদন্ত করে।

গত বছরের ৬ আগস্ট দুদকের উপরিচালক মলয় কুমার সাহা বাদী হয়ে পালং মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপসহকারী পরিচালক গাজী মো. শামসুল আরেফিন তদন্ত শেষে বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি, শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও শরীয়তপুর পৌর মেয়র আবদুর রব মুন্সি, সদস্যসচিব প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন, কমিটির সদস্য আবদুস সালাম হাওলাদার, মজিবুর রহমান হাওলাদার, আইউব আলী মল্লিক, আবদুল কুদ্দুস মোল্যা, বেগম আলফাতুন্নেছা, সুজন সাহা, সংগীতা সাহা, রণজিৎ কুমার সাহা, জমিগ্রহীতা জাহাঙ্গীর আলম ও আবদুস সালামকে মামলায় অভিযুক্ত করে গত ২৮ মে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *