মধ্যযূগীয় বর্বরতা : ভালুকায় দোকান সহ বাড়ীঘর ভাংচুর

মোঃ মমিনুল ইসলাম, ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ভালুকায় ১৪ জুলাই মঙ্গলবার উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নের পাড়াগাঁও গৌরীপুর গ্রামে আব্দুল মতিনের বাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে দোকান সহ বাড়ীঘর ভাংচুর মালামাল তছনছ ও লুটপাট করেছে। এ সময় সন্ত্রাসীরা মহিলা সহ ৫ জনকে মারপিট করে আহত করেছে।

আহতরা হলো নূরুল ইসলাম (৬৫) মুঞ্জুরুল হক (৩০) জুয়েল (২০) মিনহাজুল (১৮) ও ফজিলা খাতুন (৫০)। এদের মধ্যে মুঞ্জুরুলের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে প্রথমে ভালুকা ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেলে প্রেরন করা হয়।

মঙ্গলবার সরেজমিন গেলে ভূক্তভোগি পরিবার ও এলাকাবাসী জানায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পাড়াগাঁও গ্রামের রহমান মন্ডলের ছেলে জোহান জিমি ও মতিউর মন্ডলের ছেলে উজ্জলের নেতৃত্বে শতাধিক ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দা-লাঠি ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে আব্দুল মতিনকে সপরিবারে উচ্ছেদের লক্ষে বাড়ীতে হামলা চালায়।

হামলাকারীরা মনোহারী দোকানের নগদ টাকা লুট করে সমস্ত মালামাল নষ্ট করে,টিনের বেড়া কেটে ঘরের চাল ডাল আসবাবপত্র ভাংচুর,পানির টিউবওয়েল, টিভি,বাইসাইকেল, বিছানাপত্র সহ সমস্ত জিনিস গুড়িয়ে দিয়ে ধ্বংসজজ্ঞ চালায়। এ সময় মতিনের চাচাত ভাই মুঞ্জুরুলকে বাড়ীর উঠানে ফেলে পিটিয়ে একটি পায়ের হাড় ভেঙ্গে গুড়া করে ফেলে ও মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে গুরুতর আহত করে।

চাল, আটা, ময়দা, চিনি, সয়াবিন তৈল সহ বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী ছড়িয়ে ছিটিয়ে ফেলে দিয়ে বিভিন্ন ফলের গাছ কেটে তান্ডব চালায়। এ সময় আশপাশের লোকজন দুরে দাড়িয়ে ঘটনা প্রত্যক্ষ করেন। প্রায় এক ঘন্টা তান্ডব চালিয়ে তারা ওই স্থান ত্যাগ করে। এ ব্যাপারে ভালুকা থানায় অভিযোগ দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

This website uses cookies.