সেই তিন নারী এখন আইএস জঙ্গিদের সহধর্মিনী

4 (14)প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: আলোচিত সেই তিন ব্রিটিশ কন্যার দুজন জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের দুই জঙ্গিকে বিয়ে করেছে। পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রিন একাডেমিতে পড়াশোনা করতো খাদিজা সুলতানা (১৬), শামিমা বেগম (১৫) ও আমিরা আবাসি (১৫) নামের এই তিন কিশোরী, যারা পরস্পরের বন্ধু।

তাদের মধ্যে খাদিজা ও শামিমা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত। গত ফেব্রুয়ারিতে তারা একসঙ্গে লন্ডন ছেড়ে উড়াল দেয় তুরস্কে। সেখানকার ইস্তাম্বুল থেকে তারা সীমান্ত অতিক্রম করে প্রবেশ করে সিরিয়ায়। গতকাল তাদের পারিবারিক আইনজীবী বলেছেন, সিরিয়ায় গিয়ে তাদের দুজন বিয়ে করেছে আইএস যোদ্ধাদের। তিন বান্ধবীর মধ্যে দুজনের সঙ্গে তাদের পরিবারের যোগাযোগ রয়েছে।

তারা পরিবারকে জানিয়েছে, দায়েশের প্রতি অনুগত ও সিরিয়ার রাকা শহরে বসবাসকারী দুই ব্যক্তিকে তারা বিয়ে করেছে। তবে তিন বান্ধবীর মধ্যে কোন দুজন বিয়ে করেছে তা সনাক্ত করা যায়নি। পরিবার গুলোর পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করছেন তাসনিম আখুঞ্জে। তিনি বলেছেন, এ খবরে এক বিব্রতকর পরিস্থিতিতে রয়েছেন তারা।

ওই বালিকারা যে ব্রিটেনে ফিরে আসবে সে আশা আস্তে আস্তে ক্ষীণ হচ্ছে। খবরে বলা হয়েছে, যে দুই টিনেজ বিয়ে করেছে তাদের যুবকদের একটি ক্যাটালগ দেয়া হয়েছিল। সেখান থেকে তারা ২০ বছর পেরুনো বর খুঁজে নিয়েছে। তাদের বিয়েতে ইসলামিক স্টেটের রীতি অনুযায়ী অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, দু-এক মাস আগে তাদের এক সহপাঠী সিরিয়া গেছে।

তারা সেই পথ অনুসরণ করেছে। একই স্কুলে অধ্যয়নরত এ চারটি টিনেজ মেয়ে সিরিয়া যেতে পারে এমন আশঙ্কায় আদালত থেকে বিদেশ সফরের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছিল। তবে তাদের পরিবারকে এমন ঝুঁকির কথা জানানো হয়নি বলে পুলিশকে দোষারোপ করছে তারা। স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড বিশ্বাস করে প্রায় ৬০০ বৃটিশ নাগরিক সিরিয়া ও ইরাকে আইএসে যোগ দিয়েছে। সূত্র : বিবিসি

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *