উন্মুক্ত হচ্ছে নেপালের ঐতিহ্যবাহী স্থাপনাগুলো

প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: নেপালের ঐতিহ্যবাহী স্থাপনাগুলো আবারও সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হচ্ছে। ভয়াবহ ভূমিকম্পের পর এই প্রথম স্থাপনাগুলো উন্মুক্ত করা হচ্ছে। পর্যটকদের আকর্ষণ করতেই নেপাল সরকার এ উদ্যোগ নিয়েছে। নেপালের কাঠমুন্ডু ভেলিতে এক অনুষ্ঠানে নেপালের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃত ছয়টি হেরিটেজ সাইট খুলে দেয়া হচ্ছে।

ঐতিহাসিক দরবার স্কয়ারও উন্মুক্ত করা হবে। কর্তৃপক্ষ বলছে, ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্থ এসব স্থাপনা তারা পুন:নির্মাণ করেছে এবং পর্যটকদের জন্যও নিরাপদ। নেপালের অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের জন্য পর্যটন ব্যবসা একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবে। দেশটির অবকাঠামো ও ক্ষতিগ্রস্থ স্থাপনাগুলো বিনির্মাণের জন্য কয়েকশ মিলিয়ন ডলার প্রয়োজন।

গত এপ্রিল মাসে নেপালে বড় ধরণের ভূমিকম্পে প্রায় নয় হাজারের মতো মানুষ প্রাণ হারায়, দরবার স্কয়ারসহ বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্থ হয়। ক্ষতিগ্রস্থ স্থাপনাগুলো এখনই জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হচ্ছে বলে নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে ইউনেস্কো। তবে নেপাল সরকার জানাচ্ছে প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে। বিভিন্ন জায়গায় নিরাপত্তা কর্মীরা থাকবে। পর্যটকদের প্রত্যেকের জন্য গাউড থাকবে। এমনকি স্থাপনার যেসব জায়গায় মানুষের আনাগোনায় নষ্ট হয়ে যাবার সম্ভাবনা আছে সেগুলোতেও সাইনবোর্ড দেয়া থাকে।

This website uses cookies.