দেশব্যাপী ২০ দলের অবরোধ চলছে

45 (4)প্রথম সকাল ডটকম (ঢাকা): সংঘর্ষ, মিছিল সড়কে ব্যারিকেড সৃষ্টির মাধ্যমে সারাদেশে চলছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অবরোধ কর্মসূচি। সোমবার ৫ জানুয়ারিকে কেন্দ্র করে সমাবেশ করতে না দেয়া, বিএনপি নেত্রীকে অবরুদ্ধ করা ও নির্যাতন গ্রেফতারের প্রতিবাদে সোমবার সন্ধ্যায় বিএনপি চেয়ারপার্সন অবরোধের ডাক দেয়। পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত এ অবরোধ কর্মসূচি চলবে বলে খালেদা জিয়া ঘোষণা দেন। মঙ্গলবার রাজধানীসহ সারাদেশে অবরোধের সমর্থনে বিএনপি ও জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীরা মিছিল, সড়কে ব্যারিকেড সৃষ্টি করে বিক্ষোভ করার খবর পাওয়া গেছে। অবরোধের শুরুতে রাজধানীর ডেমরায় আওয়ামী লীগের অফিসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। রাজধানীর মগবাজার রেলগেট এলাকায় রেল লাইন অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে জামায়াত-শিবির কর্মীরা। নারায়ণগঞ্জের চাষাড়ায় বিএনপি-জামায়াতের মিছিলে বাধা ও রাবার বুলেট ছুঁড়েছে পুলিশ। এসময় আটক করা হয়েছে ৩ জনকে। আহত হয়েছেন ৪ জন। বরিশালে সড়কে ব্যারিকেড সৃষ্টি করে বিক্ষোভ করেছে জামায়াত শিবির কর্মীরা। এসময় পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়েছে। এছাড়া খুলনায় বিএনপির মিছিলে গুলি করেছে পুলিশ। অবরোধে রাজধানীতে অভ্যন্তরীণ সড়কে কিছু যানবাহন চলছে। তবে তুলনামুলক কম। তবে দূরপাল্লার সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। ঢাকা থেকে বাইরে এবং বাইরে থেকে ঢাকার ভেতর দূরপাল্লার কোন যান ঢুকতে দেখা যায়নি। এদিকে নাটোর, রাজশাহী, চট্টগ্রাম ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালন করছে স্থানীয় ২০ দলীয় জোট। নাটোরে ছাত্রদলের দুই কর্মীকে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও রাজশাহীতে বিএনপি কর্মী হত্যা এবং চট্টগ্রামে ২০ দলীয় জোটের সমাবেশে হামলাসহ দুই শতাধিক নেতাকর্মীকে আটকের প্রতিবাদে সংশ্লিষ্ট জেলা ও মহানগরে এ হরতাল কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। এছাড়া ট্রেন ও লঞ্চ চলাচল স্বাভাবিক থাকলেও যাত্রী কম থাকায় নির্ধারিত সময়ের পরে এ যানগুলো ছেড়ে যাচ্ছে। এদিকে চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, নারায়ণগঞ্জ, রংপুর, কুমিল্লা, নাটোর, চাঁপাইনবাগঞ্জসহ দেশের সব জেলা ও নগরীগুলোতে অভ্যন্তরিণ ও দূরপাল্লার যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক বলে জানা গেছে। প্রসঙ্গত, সমাবেশ করতে বাধা দেয়া ও তাকে নিজ কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখার প্রতিবাদে সোমবার এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। তিনি বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ সমাবেশ ও কালো পতাকা মিছিলের কর্মসূচি বন্ধ করতে সরকার ১৪৪ ধারা জারি করেছে। এভাবে আমাদের কর্মসূচি বন্ধ করা যাবে না। সমাবেশ করতে না দেয়া পর্যন্ত সারা দেশে অবরোধ কর্মসূচি চলবে। দেশের জনগণকে এই কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *