নববর্ষে রাজধানীতে ব্যাপক নিরাপত্তা

14_5542প্রথম সকাল ডটকম(ঢাকা): ইংরেজি নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে রাজধানীতে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব, গোয়েন্দা পুলিশসহ বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও নিয়োজিত রয়েছেন। বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, গুলশান ও বনানী এলাকায় সতর্ক অবস্থানে দেখা গেছে পুলিশকে। এছাড়াও রাত ১২টার দিকে ডিএমপি কমিশনার বেনজীর আহমেদ গুলশান ২ নম্বর এলাকা পরিদর্শন করতে পারেন বলে জানিয়েছেন ডিএমপির অতিরিক্ত উপকমিশনার (মিডিয়া) সাইদুর রহমান। এর আগে মঙ্গলবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার বেনজীর আহমেদ ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় নগরবাসী স্বতঃস্ফুর্তভাবে বিভিন্ন আনন্দ উৎসবে অংশগ্রহণ করবে। পূর্ববর্তী বছরগুলো পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, এ আনন্দ উৎসব উদযাপনের নামে কিছু উচ্ছৃঙ্খল ব্যক্তি নিজস্ব সংস্কৃতি, মূল্যবোধ ও ঐতিহ্যবিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত হয়ে থাকে। কতিপয় ব্যক্তি আনন্দের আতিশয্যে পটকাবাজি, আতশবাজি, অশোভন আচরণ, বেপরোয়া গাড়ি ও মোটরসাইকেল চালানোর মাধ্যমে রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিতির উদ্ভব ঘটায়। ক্ষেত্র বিশেষে প্রকাশ্যে অভদ্রোজনোচিত আচরণ করে থাকে। এ সব নৈতিক মূল্যবোধ পরিপন্থী কর্মকান্ড একদিকে যেমন সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রাকে ব্যাহত করে অন্যদিকে, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কা সৃষ্টি করে। তাই নববর্ষ উদযাপনকালে রাজধানীতে আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে ডিএমপি কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে। নববর্ষ উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় বসবাসরত সম্মানিত নাগরিকদের বুধবার রাত ৮টার পূর্বে স্ব-স্ব বাসস্থানে প্রত্যাবর্তনের অনুরোধ করেন তিনি। এ সময়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রবেশের ক্ষেত্রে সম্মানিত নাগরিকদের কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যবৃন্দকে পরিচয়পত্র প্রদর্শন করতে অনুরোধ করা হয়। একইভাবে সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে গুলশান, বনানী, বারিধারা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক এলাকায় যারা বসবাস করেন না তাদের ওইসব এলাকায় গমনের ক্ষেত্রে নিরুৎসাহিত করা হয়। রাত ৮টার পর হাতিরঝিল এলাকায় জনসাধারণকে প্রবেশ করতে নিষেধ করা হয়েছে। নববর্ষ উপলক্ষে রাজধানীর যেসব হোটেলে নববর্ষ উদযাপন করা হবে সেখানে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে ডিএমপি। বিশেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও গির্জা ও চার্চে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে ডিএমপি।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *