আজ ও কাল সকাল-সন্ধ্যা হরতাল

প্রথম সকাল ডটকম: আজ বুধবার এবং আগামীকাল বৃহস্পতিবার ২ দিন সারাদেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জামায়াত। প্রতিদিন সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৫টা পর্যন্ত এই হরতাল চলবে। মঙ্গলবার দুপুরে বিভিন্ন গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলামকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার সরকারি ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে এই হরতালের ডাক দেয়া হয় বলে জানানো হয়। বিবৃতিতে জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির মকবুল আহমাদ বলেছেন, সরকার পরিকল্পিতভাবে জামায়াত নেতৃবৃন্দকে হত্যা করার ষড়যন্ত্র করছে। সরকারের ধারাবাহিক ষড়যন্ত্রের শিকার জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম। তিনি বলেন, সরকার মিথ্যা, বায়বীয় ও কাল্পনিক অভিযোগে আজহারুল ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দায়ের করে নিজেদের দলীয় লোকদের দ্বারা আদালতে মিথ্যা সাক্ষ্য প্রদান করে। মকবুল আহমাদ বলেন, আদালত সরকারের দায়ের করা মিথ্যা মামলায়, সাজানো সাক্ষীর ভিত্তিতে আজ তার বিরুদ্ধে মৃত্যুদন্ডের যে রায় ঘোষণা করেছেন তা একটি ন্যায়ভ্রষ্ট রায়। এ রায়ে আজহারুল ইসলাম ন্যায়বিচার পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। তিনি বলেন, এ রায়ের বিরুদ্ধে তিনি উচ্চ আদালতে আপীল করবেন। উচ্চ আদালত ন্যায়বিচার নিশ্চিত করলে তিনি খালাস পাবেন বলে আমরা গভীরভাবে বিশ্বাস করি। মকবুল আহমাদ বলেন, সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য বিচারের নামে যে প্রহসনের আয়োজন করেছে, দেশে-বিদেশে তার কোনো গ্রহণযোগ্যতা নেই। সরকারের মন্ত্রী ও দলীয় নেতাদের বক্তব্যে প্রতীয়মান হয়, আদালতের বিচার কার্যক্রম সরকারের নিয়ন্ত্রণে পরিচালিত হচ্ছে। তিনি বলেন, আমাদের প্রতিবাদ ও গণতান্ত্রিক কর্মসূচি সরকারি ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের বিরুদ্ধে। আর সরকারের যে কোনো ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো আমাদের সাংবিধানিক অধিকার। সরকার ট্রাইব্যুনালে পরিচালিত বিচার কার্যক্রমকে নানাভাবে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছে। মকবুল আহমাদ বলেন, সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় শাহবাগে গণজাগরণ মঞ্চ স্থাপিত হওয়ার পর স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী ‘গণজাগরণ মঞ্চের দাবি বিবেচনায় নিয়ে রায় দেয়ার’ জন্য বিচারপতিদের প্রতি আহ্বান জানান। এদিকে অ্যাম্বুলেন্স, লাশবাহী গাড়ি, হাসপাতাল ও ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি হরতালের আওতামুক্ত থাকবে বলে বিবৃতিতে জানানো হয়।

This website uses cookies.