খালেদার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য গ্রহণ ১৩ অক্টোবর

12forkhaledaপ্রথম সকাল ডট কম ডেস্ক: অর্থ আত্মসাতের দুই মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য গ্রহণ ১৩ অক্টোবর পর্যন্ত মুলতবি করেছেন আদালত। সোমবার বেলা পৌনে ১টার দিকে এ সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু করেন বিচারক বাসুদেব রায়। এর কিছুক্ষণ পরই তিনি এজলাস ত্যাগ করেন। ফিরে এসে আগামী ১৩ অক্টোবর পর্যন্ত সাক্ষ্য গ্রহণ মুলতবি করেন। মামলার বাদী প্রথম সাক্ষী হিসেবে সাক্ষ্য দেন দুদকের উপপরিচালক হারুন অর রশীদ। এর আগে সোমবার দুপুর ১২টার দিকে বকশীবাজারে ঢাকা আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতের তৃতীয় বিশেষ জজ বাসুদেব রায় সময়ের আবেদন ও মামলা স্থগিতাদেশের আবেদন খারিজ করে দেন। হরতালে নিরাপত্তাজনিত কারণ দেখিয়ে মামলা দুটিতে সাক্ষ্য গ্রহণ পেছানোর জন্য সকালে সময়ের আবেদন করেন খালেদার আইনজীবীরা। গত ১৭ সেপ্টেম্বর খালেদার আইনজীবীদের সময়ের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সাক্ষ্য গ্রহণের দিন সপ্তমবারের মতো পিছিয়ে সোমবার পুনর্নির্ধারণ করেন আদালত। ওই দিন খালেদা জিয়াসহ সকল আসামিকে হাজিরের নির্দেশ দিয়ে আদালত জানিয়েছিলেন, সবার উপস্থিতিতে সাক্ষ্য গ্রহণ করা হবে। খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের কাছে জানা গেছে, সারা দেশে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের আদালত বর্জন এবং ২০-দলীয় জোটের হরতাল কর্মসূচি থাকায় নিরাপত্তাজনিত কারণে খালেদা জিয়া আদালতে হাজির থাকতে না পারায় সাক্ষ্য গ্রহণ পেছাতে সময়ের আবেদন জানানো হয়েছিল। অন্যদিকে বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে বিচার শুরুর আগেও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় ৪১ বার ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় ১১ বার চার্জ শুনানির জন্য আবেদন করে সময় বাড়িয়ে নেন খালেদা জিয়া। আপিল বিভাগ খালেদার দুটি আপিল খারিজ করে দিয়েছেন এবং বাকি দুটি শুনানির জন্য অপেক্ষমাণ। তবে সর্বোচ্চ আদালতের এ রায়ে বিচারিক মামলা দুটি চলতে কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *