খালেদার আপিল শুনানি ফের আজ

12forkhaledaপ্রথম সকাল ডট কম ডেস্ক: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়াউর রহমান চ্যারিটেবল ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা দুর্নীতির মামলা দু’টিতে বিচারক নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এই রিট খারিজ করে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশের বিরুদ্ধে দু’টি আপিল আবেদনের শুনানি আজ মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে হবে। সোমবার প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের আপিল বিভাগে শুনানি করেন আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী। রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও দুদকের পক্ষে খুরশিদ আলম খান আদালতে উপস্থিত ছিলেন। প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের আপিল বেঞ্চে সোমবার তৃতীয় দিনের মতো শুনানি করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী। এর আগে গত ৪ সেপ্টেম্বর শুনানি শুরু করেন খন্দকার মাহবুব হোসেন ও অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও দুদকের পক্ষে খুরশিদ আলম খান আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বিচারিক আদালতে অভিযোগ গঠনকারী বিচারকের নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গত ১২ মে একটি রিট আবেদন দায়ের করেন খালেদা জিয়া। গত ১৯ জুন রিটটি খারিজ করে দেন বিচারপতি কাজী রেজা-উল হকের একক বেঞ্চ(তৃতীয় বেঞ্চ)। হাইকোর্টের এ রায়ের বিরুদ্ধে গত ৭ জুলাই আপিল বিভাগে দু’টি সিএমপি (৭৬৫ ও ৭৬৬) আপিল করেন খালেদা। গত বৃহস্পতিবার এ আপিল দু’টির শুনানি শুরু হয়েছে। অন্যদিকে মামলা দু’টিতে অভিযোগ (চার্জ) গঠনের আদেশ বাতিল চেয়ে গত ১৩ এপ্রিল হাইকোর্টে একটি রিভিশন আবেদন করেন খালেদা জিয়া। গত ২৩ এপ্রিল রিভিশন আবেদনটি খারিজ করে দেন বিচারপতি বোরহান উদ্দিন ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ। ৭ জুলাই ওই রায়ের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি লিভ টু আপিল (সিপি) দাখিল করেন আইনজীবী মাহবুব উদ্দিন খোকন। এ আপিল দু’টির শুনানি শুরুর অপেক্ষায় রয়েছে। উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়াউর রহমান চ্যারিটেবল ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা দুর্নীতির মামলা দু’টি ঢাকার ৩ নম্বর বিশেষ জজ বাসুদেব রায়ের আদালতে বিচারাধীন আছে। ঢাকা মহানগরের বকসিবাজার এলাকার সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা ও ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার সংলগ্ন মাঠে নির্মিত অস্থায়ী আদালতভবনে এ বিচার চলছে। আগামী ১০ সেপ্টেম্বর মামলা দু’টির সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর দিন ধার্য করে বিচারিক আদালত।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *