আত্মকেন্দ্রিক বক্তব্যে বিরক্ত খালেদা

0124 (1)প্রথম সকাল ডট কম ডেস্ক: জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠকের সময় তাঁদের আত্মকেন্দ্রিক বক্তব্যে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। রোববার রাতে চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে প্রায় দীর্ঘ চার ঘণ্টার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে খালেদা জিয়া ছাত্রদলের নেতাদের বলেন, বৈঠক আর মুলতবি রাখা হচ্ছে না। তবে সময় পেলে তিনি হয়তো সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে কথা বলবেন। আর তা না হলে তিনি তাঁর ‘সিদ্ধান্ত’ জানিয়ে দেবেন। বৈঠকে থাকা একাধিক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। জানা যায়, বৈঠকে বেশির ভাগ নেতাই আত্মকেন্দ্রিক বক্তব্য  দেন। কেউ কেউ বর্তমান কমিটির ব্যর্থতা, বিশৃঙ্খলার কথা বার বার তুলে ধরার চেষ্টা করেন। তাঁদের এ ধরনের বক্তব্যে বিএনপির চেয়ারপারসন বিরক্তি প্রকাশ করেন। সূত্র জানায়, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিষয়ক সম্পাদক মুশফিকুর রহমানের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে ছাত্রদলের নেতাদের বক্তব্য শুরু হয়। সম্পাদক থেকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পর্যন্ত পদের ৩৯ জন নেতা তাঁদের বক্তব্য তুলে ধরেন। একজন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছাড়া অন্য যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সহ-সভাপতিরা সময়ের অভাবে বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ পাননি। তাঁদের সঙ্গে পুনরায় বৈঠকের বিষয়টিও নিশ্চিত নয়। এতে সংগঠনের জ্যেষ্ঠ নেতাদের মধ্যে কিছুটা হতাশা তৈরি হয়েছে। ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এজমল হোসেন পাইলট বলেন, বৈঠকে ৩০জনের মতো ছাত্র নেতা তাদের বক্তব্যে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কাছে তুলে ধরেন। এছাড়া সাংগঠনিক বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে। নতুন কমিটির বিষয়ে কোনো আলোচনা করা হয়েছে কি না তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বৈঠকে নতুন কমিটি গঠনের বিষয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, বৈঠকে দলের সাংগঠনিক আলোচনা হয়েছে। কোথায় কোথায় দলের সাংগঠনিক ক্ষেত্রে দুর্বলতা রয়েছে তা তুলে ধরা হয়েছে। তবে বিস্ময়ের বিষয় দুই দিন চার ঘন্টা করে ৮ ঘন্টা আলোচনা হয়েছে। তবে আগামী দিনে  ছাত্র দলের নতুন কমিটি গঠনের বিষয়ে কোনো আলোচনা করার সুযোগ সৃষ্টি হয়নি বলেও জানান তিনি। এ সময় তিনি আক্ষেপ করে বলেন, কি কারণে দলের চেয়ারপারসন ছাত্র দলের নতুন কমিটি গঠনের বিষয়টি নিয়ে কার্যকর সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন না তা আমার বোধগম্য নয়। এসময় বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানিসহ ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক সুলতান সালাহ উদ্দিন টুকুসহ কেন্দ্রীয় ছাত্র দলের সভাপতি আব্দুল কাদের ভূইয়া জুয়েল,সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিব, সিনিয়র সহ-সভাপতি বজলুল করিম চৌধুরী আবেদ,সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, এ বি এম পারভেজ, ওমর ফারুক শাফিন, আনোয়ারুল হক রয়েল, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এস এম ওবায়দুল হক নাসির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান, মামুনুর রশিদ মামুন, এজমল হোসেন পাইলট, মশিউর রহমান মিশুসহ কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *