সোনা দিয়ে ক্যান্সার চিকিৎসা!

bnrainপ্রথম সকাল ডেস্ক: দুরারোগ্য ঘাতক ব্যধি ক্যান্সার চিকিৎসায় এবার এক অভাবনীয় পদ্ধতি উদ্ভাবন করলেন বিজ্ঞানীরা। সোনা দিয়ে চিকিৎসা হবে এ রোগের। যুক্তরাজ্যের একদল বিজ্ঞানী জানিয়েছেন, সোনার অণুজাতীয় কণা দিয়ে মস্তিষ্কের ক্যান্সার-টিউমারের কোষ ধ্বংস করা যাবে। প্রাথমিকভাবে গবেষণাগারে এর প্রমাণ পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। গ্লাইওব্লাসটোমা মাল্টিফরম নামে মস্তিষ্কের ক্যান্সার বেশি দেখা যায়। এ ধরনের ক্যান্সার প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের বেশি হয়। কিন্তু এ ধরনের ক্যান্সারের চিকিৎসা বেশ কঠিন ও ব্যয়বহুল। এখন থেকে তা ‘সোনার কণা’ থেরাপির মাধ্যমে চিকিৎসা করা যাবে। মস্তিষ্কের ক্যান্সার শনাক্ত হওয়ার পর প্রতি ১০০ জনের মধ্যে ৯৪ জন রোগী কয়েক সপ্তাহ থেকে কয়েক মাসের মধ্যে মারা যায়। আর যারা বেঁচে থাকেন, তারা সর্বোচ্চ পাঁচ বছর বেঁচে থাকেন। সোনার কণা থেরাপি সাধারণ কেমো থেরাপির মতো রোগীর ক্যান্সার আক্রান্ত কোষে অবমুক্ত করা হয়। এরপর তা ক্যান্সার কোষের ডিএনএ এবং পুরো কাঠামো ধ্বংস করে দেয়। এ প্রক্রিয়া এতটাই কার্যকর যে, তা মাত্র ২০ দিনে ক্যান্সার কোষ ধ্বংস করতে সক্ষম। সোনার এক ধরনের ইলেক্ট্রন কণা, যা অগার ইলেক্ট্রন নামে পরিচিত, তা মস্তিষ্কের অকেজো কোষ ধ্বংস করে সক্রিয় কোষগুলোকে রক্ষা করে। বিজ্ঞানীরা ধারণা করছেন, এ থেরাপির মাধ্যমে মানবদেহের অন্যান্য ক্যান্সারের চিকিৎসা করা সম্ভব হবে। তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *