ফেসবুক ব্যবহারকারীরা সাবধান!

প্রথম সকাল ডেস্ক: সম্প্রতি ফেসবুকে বেশ কিছু সুবিধার নামে ভয়ংকর ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। নতুন এসব সুবিধা ব্যবহার করার জন্য ফেসবুক ব্যবহারকারীদের প্রলোভন দেখিয়ে হ্যাকাররা তথ্য চুরির পাশাপাশি ব্যবহারকারীর কম্পিউটার বা মোবাইলেও ভাইরাস ছড়িয়ে দিচ্ছে। সাইবার দুর্বৃত্তদের তৈরি ফেসবুকের নতুন এসব সুবিধা রূপী ভাইরাস নিয়ে সম্প্রতি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশএ্যাবল। ফেসবুক প্রোফাইলের রঙ পরিবর্তন : ‘কালার চেঞ্জ’ নামক ফেসবুকের একটি বিজ্ঞাপন আপনাকে প্রোফাইলের রঙ পরিবর্তন করার জন্য বলতে পারে। কিন্তু এই সুবিধা নিতে গেলেই সর্বনাশ। এটি আসলে একটি ক্ষতিকারক ম্যালওয়্যার। রঙ পরিবর্তনের এই সুবিধার নামে ভয়ঙ্কর ভাইরাস আক্রমন করবে আপনার কম্পিউটার বা মোবাইল। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বহুবার এই ম্যালওয়্যারটিকে সড়িয়ে দিলেও আবার এটি নতুন করে ফিরে এসেছে। বিজ্ঞাপনটিতে বলা হয়, এখন থেকে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা তাদের প্রোফাইলের রঙ পরিবর্তনের সুযোগ পাবেন, এজন্য রঙ পরিবর্তনের আমন্ত্রণ জানানো হয়। বিজ্ঞাপনটি রঙ পরিবর্তন করার জন্য ব্যবহারকারীদের একটি ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখতে বলে এবং সেটি দেখতে গেলেই সরাসরি ব্যবহারকারীদের ভাইরাসপূর্ণ ওয়েবসাইটে নিয়ে গিয়ে পর্নোগ্রাফিক ভিডিও প্লেয়ার ডাউনলোড করানোর চেষ্টা করে। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েডচালিত কোনো পণ্য থেকে এই ভাইরাসটিতে ক্লিক করা হলে, পণ্যটি ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বলে দেখায় এবং ভাইরাস দূর করতে একটি অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোডের পরামর্শের নামে উল্টো ভাইরাস গছিয়ে দেয়। রঙ পরিবর্তনের বিজ্ঞাপনে ক্লিক করলে ভাইরাস ছড়ানো ছাড়াও হ্যাকাররা ব্যবহারকীর প্রোফাইলে অস্থায়ী প্রবেশাধিকার পেয়ে তথ্য চুরি করে নেয়। ইতিমধ্যে ১০ হাজারের বেশি ফেসবুক ব্যবহারকারী এই ম্যালওয়্যারের কবলে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে। সুতরাং এ সুবিধা গ্রহণ না করাটাই নিরাপদ। ফেসবুকের থিম পরিবর্তন : ফেসবুকের থিম পরিবর্তনের সুবিধার কথা বলেও সাইবার দুর্বৃত্তরা লিংক ছড়াচ্ছে। আকর্ষণীয় থিম পরিবর্তনের প্রলোভনে পড়ে এ জাতীয় লিংকে ক্লিক করলে ভাইরাসের কবলে পড়তে হবে। সুতরাং থিম পরিবর্তনের এ সুবিধা গ্রহণ করতে গেলে বরঞ্চ তা অসুবিধায় ফেলবে। ফেসবুকে আপনার প্রোফাইল কে দেখেছে তা জানা : আপনি যদি সামহোয়ার ইন ব্লগের ব্লগার হয়ে থাকেন, তাহলে এই সুবিধাটির সঙ্গে আপনি পরিচিত। সামহোয়ার ইন ব্লগে ব্লগাররা নিজেদের ব্লগ প্রোফাইল আজ কে কে দেখেছে, সেটা জানতে পারে। তবে ফেসবুকে কিন্তু এ ধরনের কোনো সুবিধা নেই। তাই ফেসবুকে ‘হু ভিউড ইয়োর প্রোফাইল’  লিংকে ক্লিক করবেন না। কেননা ফেসবুকে আপনার প্রোফাইল আজ কে কে দেখল, এই সুবিধার লিংক সরবরাহ করছে আসলে হ্যাকাররা। ফেসবুকে আপনার প্রোফাইল আজ কে কে দেখেছে সেটি ছাড়াও, ফেসবুকে আপনার প্রোফাইলটি কারা কতবার দেখেছে- এ ধরনের সুবিধা পাওয়ার লিংকও আপনার নিউজ ফিডে দেখতে পারেন। এটিও আসলে সুবিধার আড়ালে অসুবিধাজনক ভাইরাস ফাঁদ। বিনামূল্যে উপহার : বিনামূল্যে ফেসবুক ব্যবহার করাটাই তো আসলে ব্যবহারকারীদের জন্য ফেসবুক কর্তৃপক্ষের একটা বিশাল উপহার। তাই বিনামূল্যে ফেসবুক ব্যবহার করতে দেয়া ছাড়া বিনামূল্যের আর কোনো উপহারের ব্যবস্থা রাখেনি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। সুতরাং ফেসবুকের বিনামূল্যের টি-শার্ট বা অন্যান্য উপহার সামগ্রীর গ্রহণের লোভনীয় লিংকও আসলে সাইবার দুর্বৃত্তদের উৎপাত। সেক্স ভিডিও : ওয়েবক্যামেরা সামনে একজন মহিলা পোশাক ত্যাগ করছেন এবং জনপ্রিয় গায়িকা রিহানার সেক্স ভিডিও- এই দুটি ভিডিওর লিংক সম্প্রতি ফেসবুকে শেয়ার করা হচ্ছে। এসব ভুয়া লিংকে ক্লিক করে ভিডিও দেখতে গেলে ভাইরাসের আক্রমন, ব্যক্তিগত তথ্য চুরির পাশাপাশি বেশ বিব্রতকর অবস্থায়ও পড়তে হবে। কেননা ভিডিওগুলোতে ক্লিক করা হলে তা ফেসবুক ব্যবহারকারীর বন্ধুদেরও ট্যাগ করবে নিজে থেকেই। তাই এসব ভুয়া লিংকে ক্লিক করা থেকে বিরত থাকলে পরামর্শ দিয়েছেন নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা। ক্ষতিকারক এসব লিংকে ক্লিক করা হলে, দ্রুত পাসওয়ার্ড বদলে ফেলারও পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *