প্রশাসনে ব্যাপক রদবদল

000000548215 (2)প্রথম সকাল ডেস্ক: প্রশাসনে ব্যাপক রদবদল করা হয়েছে। যুগ্মসচিব পদ মর্যাদার অর্ধশতাধিক কর্মকর্তার দপ্তর বদল ও কয়েকজনকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা করা হয়েছে। একজন অতিরিক্ত সচিবকে ভারপ্রাপ্ত সচিব করা হয়েছে। এর মধ্যে সোমবার রাতে ৩০ জন এবং মঙ্গলবার বিকেলে আরো ২২ কর্মকর্তার দপ্তর বদল করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এ সংক্রান্ত পৃথক পৃথক আদেশ জারি করা হয়েছে। সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের আদেশে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. নজরুল ইসলামকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের (সমন্বয় ও সংস্কার) ভারপ্রাপ্ত সচিব করা হয়েছে। অতিরিক্ত সচিব পর্যায়ে দপ্তর বদলের মধ্যে এনআইএসজি’র মহাপরিচালক অতিরিক্ত সচিব কবির মো. আশরাফ আলমকে ভূমি আপিল বোর্ডের সদস্য করা হয়েছে। ভূমি আপিল বোর্ডের সদস্য মো. জাহাঙ্গীর আলমকে হায়ার এডুকেশন কোয়ালিটি এনহ্যান্সমেন্ট প্রকল্পের পরিচালক করা হয়েছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এবিএম খোরশেদ আলমকে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের এসডিসি সচিবালয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা করা হয়। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত অতিরিক্ত সচিব মো. আবু তাহেরকে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব করা হয়েছে। ওএসডি মাহমুদা বেগমকে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে সংযুক্ত করা হয়েছে। বিসিক পরিচালক অতিরিক্ত সচিব মো. জাহাঙ্গীর মোল্লা এবং অপারেশনস সাপোর্ট টু এমপ্লয়মেন্ট জেনারেশন প্রোগ্রাম ফর দি প্যুয়রেস্ট প্রকল্পের পরিচালক মো. আব্দুল কুদ্দুছকে ওএসডি করা হয়েছে। পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. রফিকুল ইসলামকে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত অতিরিক্ত সচিব রূপন কান্তি শীলকে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব করা হয়েছে। যুগ্মসচিব পদে দপ্তর বদলের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সমবায় ব্যাংক লিমিটেডের জিএম ধীরেন্দ্র চন্দ্র দাশকে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে, জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের সদস্য মো. এনামুল হককে স্থানীয় সরকার বিভাগে, বিএফআইডিসি ঢাকার জিএম মো. মাহবুব উল ইসলামকে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে, জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে বদলির আদেশাধীন গৌতম কুমার ঘোষকে তথ্য মন্ত্রণালয়ে, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের প্রকল্প পরিচালক কাজী জেবুন্নেসা বেগমকে জ্বালানি ও খণিজ সম্পদ বিভাগে, ওএসডি সৈয়দা শাহানা বারীকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে, নিপোর্ট পরিচালক মো. মুনীর চৌধুরীকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে এবং বাংলাদেশ বেতারের পরিচালক মো. জয়নাল আবেদীন মোল্লাকে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগে বদলি করা হয়েছে। বিএফডিসির পরিচালক মো. শফিকুল ইসলামকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এবং কৃষি মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত (ওএসডি) কাজী ওবায়দুর রহমানকে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব করা হয়েছে। টেম্পল বেইজ চাইলড এন্ড মাস এডু প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক স্বপন কুমার বড়ালকে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে এবং জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত যুগ্মসচিব মশিউর রহমানকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত করা হয়েছে। ওএসডি হলেন যারা :  জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন প্রকল্পের উপ প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম, ভূমি রেকর্ড জরিপ অধিদপ্তরের পরিচালক অমৃত বাড়ৈ, ন্যাশনাল স্কিলস ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিলের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার জীবন কুমার চৌধুরী, ভূমি রেকর্ড জরিপ অধিদপ্তরের পরিচালক সৈয়দ মো. ওয়াজেদ আলী, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের পরিচালক চন্দ্রনাথ বসাক এবং  প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ডা. মো. আব্দুল জলিলকে ওএসডি করা হয়েছে। প্রশাসনে ঊর্ধ্বতন আরো ২২ পদে রদবদল : মঙ্গলবার বিকেলে তিন অতিরিক্ত সচিবসহ প্রশাসনের ২২ পদে রদবদল করা হয়েছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত পৃথক আদেশ জারি করে। বিকেলে জারি করা আদেশে অতিরিক্ত সচিব পদে তিন কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে। এদের মধ্যে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল হায়দারকে জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউটের (এনআইএলজি) মহাপরিচালক করা হয়। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) অসিত কুমার মুকুট মনিকে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়। ওএসডি এস এম শামীম আহমেদকে বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের (বিপিএটিসি) এমডিএস করা হয়েছে। যুগ্মসচিব পর্যায়ে ১৯ কর্মকর্তাকে বিভিন্ন দপ্তরে বদলি করা হয়। এই কর্মকর্তাদের মধ্যে পল্লী উন্নয়ন ও  সমবায় বিভাগের যুগ্মসচিব এম এ হান্নানকে বাংলাদেশ দুগ্ধ উৎপাদনকারি সমবায় ইউনিয়নের (মিল্কভিটা) ব্যবস্থাপনা পরিচালক, জনপ্রশাসনে ন্যস্ত মোহাম্মদ নুরুল ইসলামকে বাংলাদেশ জুট মিলস করপোরেশনের (বিজেএমসি) পরিচালক, বিদ্যুৎ বিভাগের সংযুক্ত সাসটেনেবল এন্ড রিনিউয়েবল এনার্জি ডেভেলপমেন্ট অথরিটির (এসআরইডিএ) সদস্য (জ্বালানি দক্ষতা ও সংরক্ষণ), মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট পরিচালক শেখ রফিকুল ইসলামকে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের সদস্য, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব খন্দকার আতিয়ার রহমানকে নিপোর্ট পরিচালক, জনপ্রশাসনে ন্যস্ত মো. আশরাফ আলীকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এটিসিপি প্রকল্পের পরিচালক, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের পরিচালক একেএম খায়রুল আলমকে সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালক, বাংলাদেশ নদী গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক হিসেবে বদলির আদেশাধীন এ এন আহাম্মদ আলীকে মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের পরিচালক করা হয়। এ ছাড়া মংলা বন্দরে ৫০ হাজার মেট্রিক টন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন সাইলো নির্মাণ প্রকল্পের পরিচালক মো. গাজীউর রহমানকে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের এমএফএসপি প্রকল্পের পরিচালক, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত যুগ্মসচিব আনিছ আহমেদকে প্রতিযোগিতা কমিশনের সচিব করা হয়েছে। ভূমি রেকর্ড জরিপ অধিদপ্তরের দুইজনকে পরিচালক করা হয়েছে। তারা হলেন, ওএসডি হাজেরা খাতুন এবং পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের পরিচালক ফায়কুজ্জামান চৌধুরী। ভূমি মন্ত্রণালয়ে বদলির আদেশাধীন মো. মনিরুজ্জামানকে বিসিকের পরিচালক, ওএসডি বিকাশ চন্দ্র সাহাকে বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের পরিচালক, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মো. খালিদ মাহমুদকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের পরিচালক, ওএসডি ফয়জুল লতিফ চৌধুরীকে জাতীয় যাদুঘরের মহাপরিচালক, ওএসডি মো. কায়সারুল ইসলামকে সাভারের বিপিএটিসির এমডিএস, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের পরিচালক রীনা পারভিনকে বাংলাদেশ সমবায় ব্যাংক লিমিটেডের জিএম এবং জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত যুগ্মসচিব তপন কুমার ঘোষকে বিএফডিসির পরিচালক করা হয়েছে। এদিকে প্রশাসনের অন্যান্য পদেও কিছু রদবদল করা হয়। এদের মধ্যে উপসচিব মো. ফারুক আহমেদকে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) পদ থেকে প্রত্যাহার করে দুর্যাগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতির একান্ত সচিব করা হয়েছে। অপর আদেশে রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের চিফ কনসালটেন্ট (এনেসথেসিয়া) ডা. মোরশেদুল আজমকে তার অবসরোত্তর ছুটি বাতিলের শর্তে দুই বছরের জন্য একই পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ করা হয়।  যোগদানের দিন থেকে দুই বছরের জন্য তিনি এ পদে দায়িত্ব পালন করবেন। কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের সুপারিনটেন্ডেন্ট ডা. একেএম নিয়াজ উদ্দিনের অবসরোত্তর ছুটি বাতিলের শর্তে তাকে একই পদে দুই বছরের জন্য চুক্তিতে নিয়োগ করা হয়েছে। যোগদানের দিন থেকে দুই বছরের জন্য তিনি এ পদে দায়িত্ব পালন করবেন। শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট হিসেবে নিয়োজিত ডা. মো. সিরাজুল ইসলামকে আগের চুক্তির ধারাবাহিকতায় দুই বছরের জন্য নিয়োগ করা হয়েছে। আগামী ৬ জুলাই অথবা যোগদানের দিন থেকে তিনি দুই বছরের জন্য একই পদে দায়িত্ব পালন করবেন। এ ছাড়া বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের (বিপিএটিসি) এমডিএস বণিক গৌর সুন্দরকে ক্যাপাসিটি ডেভেলপমেন্ট প্রকিউরমেন্ট এন্ড ট্রেনিং ইনস্টিটিউশনালাইজেশন প্রকল্পের সর্ট-টিম কারিক্যুলাম কনসালটেন্ট পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *