ছাগলের কান্ড!

Jeshanপ্রথম সকাল ডেস্ক: সাধারণত শিক্ষক আর বয়ঃজ্যেষ্ঠরা অপেক্ষাকৃত দুর্বল শিক্ষার্থী বা কম বুদ্ধি-শুদ্ধির ছেলে-মেয়েদের ‘ছাগল’ সম্মোধন করেন। যুগ যুগ ধরে এই অপবাদ নিজেই দূর করল এক ছাগল। এতে তার ভোলা-ভালা মনুষ্য বন্ধুদের দীর্ঘশ্বাস আশাকরি কমল! পরোপকার আর সহানুভূতিতে মানুষকে যেন অনেকাংশে ছাড়িয়ে গেল এ দৃশ্য। ঘটনাটি এমন- একটি ফার্মের টেবিলের একটি ছিদ্রেয় খাড়াভাবে আটকা পড়েছে একটি ছাগল। গলা থেকে একদম নিচ পর্যন্ত ছিদ্রের নীচে আর গলার উপরের অংশ উপরে। বেচারার তো হাঁস-ফাঁস অবস্থা! ইউটিউবের দু’টি ভিডিওতে আরও দেখা যায়, প্রায় তিন ফুট উঁচু টেবিলের এই ফুটো থেকে অনেক চেষ্টা করেও বের হতে পারছে না অবলা প্রাণীটি। তখনই তার সাহায্যে এগিয়ে এলো ফার্মের আরেক ছাগল বন্ধু। লাফিয়ে টেবিলে উঠে, শিং দিয়ে সেও অনেক চেষ্টা করল তাকে উপরের দিক থেকে টেনে বের করে আনার। কিন্তু, নাহ! তার চেষ্টাও বিফলে গেল। শেষে না পেরে ফার্মের রক্ষণাবেক্ষণকারী এক নারী গিয়ে তাকে বের করে আনেন। তবে কোথা থেকে ভিডিওটি ধারণ করা হয়েছে তা নিশ্চিত করেনি মেট্রো নিউজ। শেষে তারা লিখেছেন, আসলে প্রাণীরা এরমকম হর-হামেশাই করে থাকে। বরং নগর জীবনের আধুনিক মানুষগুলোই এ থেকে শিক্ষা নিতে পারেন।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *