শেখ জামাল ছাড়লেন সনি নর্দে!

000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000000 (13)প্রথম সকাল ডেস্ক: ইউরোপিয়ান ফুটবলের প্রতি সনি নর্দের আগ্রহটা অনেক দিনের। ছোটবেলা থেকেই নাকি ইউরোপে ক্যারিয়ার গড়ার স্বপ্ন দেখতেন হাইতির এই প্লে-মেকার। কিন্তু সুযোগ হয়নি তার। আর্জেন্টিনার প্রাক্তন সুপারস্টার দিয়েগো ম্যারাডোনার ক্লাব বোকা জুনিয়র্সে খেলা সনি নর্দে বাংলাদেশে দুই মৌসুম কাটান। ২০১২ সালে বন্ধুর হাত ধরে বাংলাদেশের ক্লাব শেখ রাসেলে খেলতে আসেন নর্দে। এরপর বাংলার মাটিতে পায়ের যাদু দেখান নর্দে। প্রথম মৌসুমেই শেখ রাসেলের হয়ে ফেডারেশন কাপ, স্বাধীনতা কাপ ও প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা জিতেন  তিনি। নর্দের উপর চোখ পড়ে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের। মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে শেখ রাসেল ছেড়ে ২০১৩-১৪ মৌসুমে শেখ জামালে খেলেন এই প্লে-মেকার। সনি নর্দের পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতায় ফেডারেশন কাপ ও লিগ কাপ জিতে নেয় শেখ জামাল। এরই মাঝে কলকাতার আইএফএ শিল্ডে নজরকাড়া পারফরম্যান্স করেন নর্দে। তখনই বোঝা যাচ্ছিল নর্দেকে আর ধরে রাখতে পারবে না শেখ জামাল। হাইতির এই প্লে-মেকার বেলজিয়ামের ক্লাব ওসটেন্ডেতে নাম লিখিয়েছেন। একাধিক গণমাধ্যমে বিষয়টি স্বীকার করেন সনি নর্দে। ধানমন্ডি ক্লাবের সঙ্গে সকল চুক্তি চুকিয়ে বর্তমানে হাইতিতে অবস্থান করছেন নর্দে। দেশ ছাড়ার দুদিনের মাথায় ধানমন্ডি ক্লাব কর্মকর্তাদের মাথায় বাজ পড়ল। কারণ কলকাতার শীর্ষ পত্রিকা আনন্দবাজার জানিয়েছে, সনি নর্দে সামনের মৌসুমে মোহনবাগানের জার্সিতেই মাঠে নামবেন। কলকাতায় আইএফএ শিল্ডে খেলতে গিয়ে কলকাতাবাসীর নজর কাড়েন নর্দে। তখন থেকেই নর্দেও পেছনে টাকার থলি নিয়ে ঘুরতে থাকেন মোহনবাগানের ক্লাব কর্তারা। মোহনবাগানের দুই কর্তা দেবাশিস দত্ত এবং সঞ্জয় বসু বাংলাদেশে এসে সবকিছু চূড়ান্ত করে ফেলে। আনন্দবাজার পত্রিকা তাদের প্রতিবেদনে জানায়, ব্যক্তিগত সম্পর্কের জন্যই বেলজিয়ামের ক্লাবের প্রস্তাব ছেড়ে মোহনবাগানে খেলতে রাজি হন ধানমন্ডির এই প্লে-মেকার। তবে দুই পক্ষের কথা পাকা হয়ে গেলেও, এখনও খাতায়-কলমে সই হয়নি। এদিকে ধানমন্ডি ক্লাবের সূত্র জানায়, শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের সভাপতি মঞ্জুর কাদেরকে মিথ্যা বলেই ক্লাবের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছেন নর্দে। ক্লাবের বিশ্বাস অর্জনের জন্যই বেলজিয়ামের ক্লাব ওসটেন্ডে খেলার কথা বলেন নর্দে। সভাপতি মঞ্জুর কাদেরও নর্দের ক্যারিয়ারের কথা ভেবেই তাকে ছাড়তে রাজি হন। তবে নর্দে সবাইকে মিথ্যা বলবে কেউ তা ধারণা করতে পারেনি।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *