নববর্ষ ঘিরে রমনা-সোহরাওয়ার্দীতে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা : ফেসবুকেও চলছে নজরদারি

প্রথম সকাল ডটকম: দরজায় কড়া নাড়ছে বাঙালির প্রাণের উৎসব। আর মাত্র ৪ দিন পর বাংলা নববর্ষের উৎসবে মাতবে সারা দেশ। পুরাতনকে ঝেড়ে ফেলে নতুন বছরকে বরণ করে নিতে প্রস্তুতি শুরু হয়েছে বাংলার ঘরে ঘরে। সেদিন দল-মত নির্বিশেষে মাতবে সবাই প্রাণের উৎসবে।

এই উৎসব নির্বিঘ্নে পালনের জন্য নিরাপত্তা ছক চূড়ান্ত করেছে সরকার। পহেলা বৈশাখ ঘিরে আয়োজিত সব অনুষ্ঠানে এবারও কঠোর নিরাপত্তা দিতে প্রস্তুত হচ্ছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

বিশেষ নিরাপত্তা নেয়া হয়েছে রাজধানীর রমনা বটমূল, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও রবীন্দ্র সরোবরকে ঘিরে।

এছাড়া ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোন ব্যক্তি বা গোষ্ঠী যাতে অপপ্রচার চালিয়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে না পারে সেজন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পুলিশ হেড কোয়ার্টার্স জানায়, পহেলা বৈশাখের দিন এই ৩টি স্থানে জনসমাগম ঘটে। এসব স্থানে যৌন হয়রানির ঘটনাও ঘটেছে।

সব কিছু মাথায় রেখে বিশেষ করে এই ৩ স্পটকেন্দ্রিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সম্প্রতি পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে পহেলা বৈশাখের নিরাপত্তা নিয়ে একটি সমন্বয় সভার আয়োজন করা হয়। সভার নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, পহেলা বৈশাখের দিন ঢাকাসহ দেশের সব অনুষ্ঠানস্থলে ইউনিফর্ম ও সাদা পোশাকে পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হবে।

বিশেষ স্থানে থাকবে পুলিশের ওয়াচ টাওয়ার। এছাড়া পুলিশের সদস্যরা সার্বক্ষণিক টহল ডিউটিতে থাকবে। বড় বড় জনসমাগম স্থলে সব দর্শনার্থীকে আর্চওয়ে, মেটাল ডিটেক্টর ও ম্যানুয়ালি চেকিংয়ের পর অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ করতে হবে। অনুষ্ঠানকেন্দ্রিক এলাকাগুলো সিসিটিভি ক্যামেরার আওতায় থাকবে। আগের দিন ডগ স্কোয়াড দিয়ে বিশেষ বিশেষ স্থানগুলো সুইপিং করা হবে।

এছাড়া যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকবে পুলিশের বিশেষায়িত সোয়াত বাহিনী ও বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট। পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের সহকারী মহা-পরিদর্শক (এআইজি) সহেলী ফেরদৌস জাগো নিউজকে বলেন, সভায় রাজধানী ঢাকায় রমনা বটমূল, রবীন্দ্র সরোবর, হাতিরঝিলসহ বৃহৎ জনসমাগমস্থল এবং মঙ্গল শোভাযাত্রায় পুলিশ এবং অন্যান্য সংস্থার সমন্বয়ে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে নিরাপত্তা ঝুঁকি পর্যালোচনা করে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ ও গাড়ি পার্কিংয়ে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। জরুরি উদ্ধার অভিযানের জন্য র‌্যাবের হেলিকপ্টার নিয়োজিত থাকবে। তিনি আরও বলেন, রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বড় বড় শপিং সেন্টার, মার্কেট, বাজার, দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহে নববর্ষের হালখাতা অনুষ্ঠান উপলক্ষে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রেল স্টেশন, লঞ্চ ও বাস টার্মিনালসহ জনসাধারণের চলাচলের স্থানে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হবে। অজ্ঞান পার্টি, মলম পার্টি ও প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ইউনিফর্ম পোশাকে ও সাদা পোশাকে পুলিশ মোতায়েন থাকবে। এছাড়া ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী যাতে অপপ্রচার চালিয়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে না পারে সেজন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন এবং নাশকতাকারীদের বিরুদ্ধে গোয়েন্দা নজরদারী বাড়ানো হবে। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, নববর্ষের দিন উন্মুক্ত স্থানে ৫টা পর্যন্ত অনুষ্ঠান করা যাবে। শুধু রবীন্দ্র সরোবরে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত অনুষ্ঠান চলবে। আমরা সেখানে নিরাপত্তা জোরদার করব। সার্চলাইট স্থাপন করব।

হাতিরঝিলে আগে যেভাবে অনুষ্ঠান চলছিল সেভাবেই চলবে। হাতিরঝিলে সব সময়ই মানুষের ঢল নামে। আমরা তো মানুষের ঢল থামাতে পারব না। আমরা বলব, অনুষ্ঠানগুলো যাতে ৫টার মধ্যেই শেষ করে দেয়। এদিকে পহেলা বৈশাখের দিন মঙ্গল শোভাযাত্রার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বেশ কয়েকটি নির্দেশনা দিয়েছে ডিএমপি।

নিরাপত্তা-সংক্রান্ত এক সভায় ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, যারা মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করবেন, তারা চারুকলা ইনস্টিটিউট থেকে শোভাযাত্রায় অংশ নিবেন। পথের মধ্যে থেকে কোনো অবস্থায় শোভাযাত্রার বেষ্টনীর মধ্যে ঢুকতে দেয়া হবে না। এছাড়াও কোন কোম্পানিকে তার পণ্যের বা কোম্পানির বিজ্ঞাপন মঙ্গল শোভাযাত্রায় দিতে দেয়া হবে না।

মঙ্গল শোভাযাত্রায় মুখে মুখোশ নয়, ভুভুজেলাও নিষিদ্ধ:- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিরাপত্তা-সংক্রান্ত এক বৈঠকে প্রতিবছরের মতো মঙ্গল শোভাযাত্রার মুখোশ মুখে না লাগিয়ে এটা হাতে প্ল্যাকার্ড হিসেবে বহন করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়া শোভাযাত্রায় ভুভুজেলা বাঁশি বাজানো নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *