শ্বেতাঙ্গ সন্তানের জন্ম দিয়ে অবাক কৃষ্ণাঙ্গ দম্পতি

প্রথম সকাল ডটকম ডেস্ক: সন্তান ছেলে নাকি মেয়ে হয়েছে তা নিয়ে অনেকেরই অনেকরকম প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। তাই বলে সন্তান ধবধবে সুন্দর হয়েছে দেখে কেউ অবাক হয় নাকি! কিন্তু ধবধবে ফর্সা ত্বক আর সোনানি চুল নিয়ে সন্তান জন্ম নিলে কৃষ্ণাঙ্গ দম্পতি তো অবাক হবেই।

সন্তানকে দেখে প্রথমেই তাদের মনে হয়েছিল, এই সন্তান কী সত্যিই তাদের? প্রথমে বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না অফ্রিকান দম্পতি; হতবাক চিকিৎসকরাও। কীভাবে ঘটল এমন ঘটনা? ফ্রান্সিস ও অর্লেট শিবাঙ্গু দম্পতি শ্বেতাঙ্গ ড্যানিয়েলের বাবা-মা।

২০০৮ সালে বিয়ে হয় ফ্রান্সিস ও অর্লেটের। বর্তমানে দু’জনেই থাকেন লাফবরো-তে। মাস খানেক আগে যুক্তরাজ্যের লেস্টার রয়্যাল ইনফার্মারি হাসপাতালে ড্যানিয়েলের জন্ম দেন অর্লেট। ড্যানিয়েলের জন্মের পরই তাকে দেখে চমকে ওঠেন ওই দম্পতি।

কারণ কৃষ্ণাঙ্গ পরিবারে এমন ঘটনা এই প্রথম। ধবধবে সাদা চামড়া আর সোনালি চুল নিয়ে জন্মেছে ড্যানিয়েল। ২৮ বছরের ফ্রান্সিস জানান, প্রথমে তিনি বিশ্বাসই করেননি ড্যানিয়েল তারই সন্তান। অনেকে এই নিয়ে নানান গুজবও ছড়াতে শুরু করে। কিন্তু ফ্রান্সিস জানান, প্রথমে একটু খটকা লাগলেও স্ত্রীকে সম্পূর্ণ বিশ্বাস করেন তিনি।

তাছাড়া ভাল করে দেখলেই বোঝা যায়, ড্যানিয়েলের চোখ, নাক, মুখের আদলের সঙ্গে তার এবং অর্লেটের প্রচুর মিল রয়েছে। ২৫ বছরের অর্লেট জানান, ‘ড্যানিয়েলের জন্মের পর সকলেই চুপ করে ছিল। কিন্তু ওকে একবার দেখেই আমি বুঝেছিলাম, ও আমাদের। ওকে কোলে নেয়ার পরেই সেই টানটা অনুভব করলাম। আসলে ড্যানিয়েল আমাদেরই সন্তান।

ফ্রান্সিস জানান, সম্ভবত ছয় প্রজন্ম আগে আমাদের পরিবারে এমন শ্বেতাঙ্গ সন্তানের জন্ম হয়েছিল। কিন্তু এ ব্যাপারে সঠিকভাবে কিছু জানা যায়নি। ফ্রান্সিস ও অর্লেটের দু’বছরের একজন পুত্র সন্তানও রয়েছে। তবে সে একেবারেই স্বাভাবিক মানে কৃষ্ণাঙ্গ বলে জানিয়েছেন শিবাঙ্গু দম্পতি। তবে ড্যানিয়েলের ক্ষেত্রে ঠিক কী কারণে এমন হল তার সঠিক উত্তর দিতে পারেননি চিকিৎসকরাও।

 

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *